রাজীব কুমারকে হত্যার ষড়যন্ত্র! চাঞ্চল্যকর অভিযোগ সোমেনের

Spread the love

রাজ্যের এডিজি সিআইডি রাজীব কুমারকে হত্যা করা হতে পারে। বিবৃতি জারি করে এমনটাই আশঙ্কা প্রকাশ করলেন পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র। এদিকে রাজীব কুমারের খোঁজে তল্লাশি অভিযান জারি রয়েছে। শুক্রবার রাজীব কুমারের উত্তর প্রদেশের পৈত্তিক বাড়িতে হানা দেয় সিবিআই আধিকারিকদের একটি দল। যদিও সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি বলেই সূত্রের খবর। অন্যদিকে কলকাতাতেও চলছে সিবিআই নজরদারি।

বিবৃতি সোমেন মিত্র জানিয়েছেন, ২০১৩ সালে সারদা কেলেঙ্কারি প্রকাশ্যে আসার পরে তৎকালীন বিধাননগরের পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিমের প্রধান করা হয়। ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে সারদা চিটফান্ডের কর্ণধার সুদীপ্ত সেনকে রাজীব কুমারের টিম গ্রেফতার করে জম্বু -কাশ্মীর থেকে। তারপর ২০১৪ সালে মহামান্য সুপ্রিম কোর্ট চিটফান্ড কেলেঙ্কারির তদন্ত সিবিআইকে করার নির্দেশ দেন। দেশের সর্বোচ্চ কোর্টের নির্দেশে রাজীব কুমারকে সারদা চিটফান্ডের সব নথি সিবিআইকে তুলে দিতে হয়। তখনই তাঁর বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ নথি নষ্ট করার অভিযোগ ওঠে। সারদাকাণ্ডে রাজ্য সরকারের অনেক প্রভাবশালী নেতারা জেলও খেটেছে। তাই তারা নিশ্চিত রাজীব কুমার সিবিআই হেফাজতে গেলে তৃণমুল কংগ্রেসের মাথাদের নাম সামনে চলে আসবে। এপ্রসঙ্গে সোমেন মিত্র উল্লেখ করেছেন, স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী রাজীব কুমারকে বাঁচানোর জন্য মেট্রো চ্যানেলে ধর্নায় বসেছিলেন। তাই রাজীব কুমারকে হত্যা করা হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন তিনি। বিবৃতি জারি করে জানিয়েছেন সোমেন মিত্র।

এদিকে শুক্রবার রাজীব কুমারের উত্তর প্রদেশের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই। পাশাপাশি কলকাতাতেও চলছে নজরদারি। কোথাও বেশিক্ষণ থাকছেন না রাজীব কুমার এমনটাই মত সিবিআই আধিকারিকদের।

শুক্রবার রাজীব কুমারের খোঁজে পার্কস্ট্রিটের কোয়ার্টারে গিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি বিষ্ণপুরের রিসর্টেও তল্লাশি চালান সিবিআই আধিকারিকরা। এর আগে কলকাতার একটি পাঁচতারা হোটেলেও তল্লাশি চালিয়েছিল সিবিআই।

সুত্র : ওয়ানইন্ডিয়া বাংলা

আপনার মন্তব্য

Spread the love