plan cul gratuit - plan cul toulouse - voyance gratuite amour

হিন্দু-মুসলিম নয়, তৃণমূল বিজেপিই সমস্যার মূলে: দাবি অপর্ণা-কৌশিকদের

Spread the love

হিন্দু-মুসলিম নয়, তৃণমূল বিজেপিই সমস্যার মূলে: দাবি অপর্ণা-কৌশিকদের

অশান্তির পরিবেশে ভাটপাড়ায় ছুটে গেলেন বুদ্ধিজীবীদের একাংশ। অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, চন্দন সেন প্রমুখ বিশিষ্টরা বৃহস্পতিবার দুপুরে কাঁকিনাড়া ও ভাটপাড়ার সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের অসুবিধের কথা জানার চেষ্টা করেছেন। বিশিষ্টজনেরা জানিয়েছেন, সেখানকার অসহায় মানুষদের যন্ত্রণার কথা মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্যপালের কাছে তুলে ধরবেন তাঁরা।

সাধারণ মানুষদের সঙ্গে কথা বলে ভাটপাড়ার পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মার কাছে স্মারকলিপি জামা দেন বিশিষ্টজনেরা। এরপর সাংবাদিক সম্মেলনে অপর্ণা সেন বলেন, “দুই সম্প্রদায়ের মানুষের সঙ্গে কথা বলে কীভাবে শান্তি স্থাপন করা যায় তার জন্য আলোচনা জরুরি। এখানকার হিন্দু মুসলমান একে অপরকে দোষারপ করছে না, এটা দেখে আমার ভালো লাগল। তাঁরা বলছেন, এখানে শান্তিতে ছিলেন এবং আগামী দিনেও শান্তিতে থাকতে চান। সাধারণ মানুষেরা দোষারপ করছে তৃণমূল ও বিজেপি এই দুই দলকে। একথা আমরা পুলিশ কমিশনারকে জানিয়েছি। তিনি দ্রুত উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যপালকে এই কথাগুলো জানানোর প্রয়োজন মনে করি এবং জানাবো।”

কৌশিক সেনের কথায়, “তৃণমূল এবং বিজেপি এই দুই পক্ষের মধ্যে রাজনৈতিক লড়াইয়ের শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। অনেক বয়স্ক মানুষের সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। তাঁরা জানিয়েছেন, এখানে আগে কোনও সম্প্রদায়িক হানাহানি হয়নি। মানুষ তাঁদের ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত। মানুষের ঘরবাড়ি লুঠ হয়েছে, দোকান বেদখল হয়েছে। পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মা বলছেন, একে একে দোকানপাট খুলছে এখন। যদিও রাতারাতি সব ঠিক হওয়া সম্ভব নয়। কয়েক মাস লেগে যাবে আবার মানুষের ওপর মানুষের আস্থা ফিরে আসতে।”

প্রশাসনের উদ্দেশে কৌশিক বাবু আরও বলেন, “প্রশাসনকে বলতে পারি নাগরিক হিসেবে আমরা উদ্বিগ্ন। প্রশাসনকেই এর উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে হবে। যদি প্রশাসনের সদিচ্ছা থাকে তাহলে সবকিছু ঠিক হওয়া সম্ভব। রাজ্যপাল সবদিক থেকে নিরপেক্ষ তাঁকে আমরা সমস্তটা জানাব। মখ্যমন্ত্রীকেও জানাব। তবে এখনাকার লোকাল প্রশাসন অনেক বেশি অ্যাকটিভ। প্রশাসনের পক্ষ থেকে যদি মনোজ বর্মা দুই সম্প্রদায়ের মানুষকে নিয়ে একটা মিটিং করেন, সেখানে যদি আমাদের আসতে বলা হয় নাগরিক হিসেবে তাহলে আমরা আসতে রাজি আছি।”

আপনার মন্তব্য

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।