plan cul gratuit - plan cul toulouse - voyance gratuite amour

লাউডস্পীকারে ভজন বাজানোয় মন্দিরে ঢুকে হিন্দুদের মারধর করলো কট্টরপন্থীরা!

Spread the love

লাউডস্পীকারে ভজন বাজানোয় মন্দিরে ঢুকে হিন্দুদের মারধর করলো কট্টরপন্থীরা!

উত্তরপ্রদেশের মেরঠের এক গ্রামে বৃহস্পতিবার দিন কিছু উগ্র মুসলিম যুবক মন্দিরে প্রবেশ করে উৎপাত শুরু করেছিল। মন্দিরে ঢুকে কট্টরপন্থীরা দলিত যুবকের উপর আক্রমণ করে। দলিত হিন্দু যুবককে মারধর করার কারণ এই যে, মন্দিরে সে লাউডস্পিকার লাগিয়ে ভজন শুনছিল। আর এতেই ক্ষেপে উঠে উগ্রবাদী কট্টরপন্থীরা। শুধু এই নয়, এরপর হিন্দুরা দলিত যুবককে মারার জন্য প্রতিবাদ জানালে কট্টরপন্থীরা তাদের পুরো ভিড় নিয়ে হাজির হয় দাঙ্গা করার জন্য। লাঠি, ছুরি, অস্ত্র, পাথর নিয়ে হিন্দুদের উপর হামলা করতে হাজির হয় জিহাদি বাহিনী।

সূচনা পাওয়া মাত্র পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় এবং ৬ জন কট্টরপন্থীকে গ্রেফতার করে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ঘটনা কঙ্করখেডা এলাকার ঘানসৌলি গ্রামের। সেখানে দলিত হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন মন্দিরে ভজন শুনেছিল। লাউডস্পীকারে ভজন লাগিয়ে শোনায় কট্টরপন্থীরা ক্ষেপে উঠে এবং আক্রমণ চালায়। মন্দিরে ঢুকে এক যুবককে মারধোর করে। পুলিশ ফোর্স এলে কট্টরপন্থীরা পালিয়ে যায়। কিন্তু পুলিশ অভিযোগের ভিত্তিতে ৬ জন জিহাদিকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রামের মানুষের কাছে পুলিশ শান্তি। বজায় রাখার জন্য অনুগ্রহ করেছে। গ্রামের উত্তেজনাকে লক্ষ করে পিএসি নিযুক্ত করা হয়েছে। পুলিশ সরলেই আবার জিহাদি বাহিনী হিন্দুদের উপর আক্রমণ চালাতে পারে। এই কারণে এলাকায় নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। মেরঠ জেলার আরো এক প্রান্ত থেকে হিন্দু পলায়নের ঘটনা সামনে এসেছে। খবর প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। হিন্দু ভোটে বিজেপি কেন্দ্রের ক্ষমতায় এসে হিন্দুদের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ সামনে এসেছে। এই কারণে যোগী প্রশাসন কড়া হাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেমেছে।

সুত্র : India Rag

আপনার মন্তব্য

Spread the love