তিন তালাক তুলে দিয়েছেন ‘দাদা’, মোদিকে রাখি পাঠাচ্ছেন বারাণসীর মুসলিম মহিলারা

তিন তালাক তুলে দিয়েছেন ‘দাদা’, মোদিকে রাখি পাঠাচ্ছেন বারাণসীর মুসলিম মহিলারা

‘‘আমাদের শাপমুক্তি ঘটিয়েছেন উনি৷ ত্রাতার মতো আমাদের রক্ষা করেছেন৷ দাদা যেমন নিজের বোনকে আগলে রাখেন, তেমনই উনিও আমাদের রক্ষা করেছেন৷’’ না এটা কোনও সিনেমার সংলাপ নয়৷ বিল এনে বিতর্কিত তিন তালাক প্রথা বন্ধ করায়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ধন্যবাদ জানিয়ে এমনই বলছেন সেখানকার মুসলিম মহিলারা৷ এবং সেজন্যই প্রধানমন্ত্রীর জন্য নিজের হাতে রাখি তৈরি করছেন তাঁরা৷ নির্দিষ্ট দিনে যা পৌঁছে যাবে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে৷

রামপুরার বাসিন্দা হুমা বানো বলেন, ‘‘কেবলমাত্র প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্যই এটা সম্ভবপর হয়েছে৷ তিন তালাকের মতো একটা প্রথা সাজাযোগ্য বলে গণ্য হয়েছে৷ দেশের সমস্ত মুসলিম মেয়েদের কাছে উনি বড় দাদার মতো৷ তাই আমাদের দাদার জন্য আমরা রাখি তৈরি করছি৷’’ কেবল হুমা বানো নয়, একই কথা বলছেন বাকিরাও৷ তাঁদের বক্তব্য, ‘‘এতদিন ধরে ব্যাধীর মতো তিন তালাক প্রথা নিয়ে বয়ে বেরাতে হচ্ছিল মুসলিম মেয়েদের৷ মাথা নীচু করে থাকতে হত তাঁদের৷ কিন্তু এখন আক্ষরিক অর্থে স্বাধীনতা ফিরে পেয়েছেন তাঁরা৷’’ যদিও বিষয়টিকে ‘অপপ্রচার’ বলে অভিযোগ করেছে ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লিগ৷ কট্টর মুসলিমপন্থী এই সংগঠনের দাবি, ‘‘আরএসএস-এর মুসলিম শাখাই এই ধরনের প্রচার চালাচ্ছে৷ এরজন্য নকল লোকদের মুসলিম সাজানো হচ্ছে৷ অথবা ভাড়া করে নিয়ে আসা হচ্ছে৷ চাপে পড়ে একাংশের মানুষ এই ধরনের কথা বলছেন৷ এটা সরকারের অপপ্রচার৷’’

উল্লেখ্য, প্রথমবারে না হলেও, ক্ষমতায় এসেই তিন তালাক বিল পাশ করে দ্বিতীয় মোদি সরকার৷ ১৯ মাসের নিরলস পরিশ্রমে প্রথমে লোকসভায়, তারপর রাজ্যসভাতেও পাশ হয় এই বিল৷ ৯৯-৮৪ ভোটে সংসদের উচ্চকক্ষে পাশ হয় বিলটি৷ দীর্ঘকাল পুরুষশাসিত সমাজের বাঁধন ছেড়ে এবার মুক্তির হাওয়া উপভোগ করতে পারেন সংখ্যালঘু মহিলারা৷ যদিও বিলের বিরোধিতায় সরব হয় বিরোধীদের একাংশ৷ ভোটদানে বিরত থাকে বিএসপি, টিআরএস৷ সংসদে অনুপস্থিত থাকে ওয়াইএসআর কংগ্রেস, এনসিপির বেশ কয়েকজন সাংসদ৷ এই ইস্যুতে কেন্দ্রকে পুরোপুরি সমর্থন করে নবীন পট্টনায়েকের বিজেডি৷

সুত্র : সংবাদ প্রতিদিন

আপনার মন্তব্য