বিচিত্রতা

মাটির নিচে রহস্যময় আস্ত একটি গ্রাম!

মাটির নিচে রহস্যময় আস্ত একটি গ্রাম!

সম্প্রতি ড্রোন ফুটেজের মাধ্যমে ধরা পড়েছে চীনের এক রহস্যময় গ্রাম। সেখানে দেখা যায়, সবগুলো বাড়িই রয়েছে মাটির নিচে। ওই গ্রামের বাসিন্দারা প্রায় ২০০ শত বছর ধরে মাটির নিচেই বাড়ি তৈরি করে থাকছেন।

রহস্যময় ওই গ্রামটিতে আরো দেখা যায়, পরপর লাইন দিয়ে রয়েছে এ রকম অন্তত প্রায় ১০ হাজার ঘরবাড়ি। সেখানে এখনো বসবাস করেন প্রায় ৩ হাজার মানুষ। খবর কলকাতা২৪।

চীনের হেনান প্রদেশের কাছে রয়েছে এই রহস্যময় গ্রাম। ৩ হাজার লোক বাদে বাকিরা ওই ঘরবাড়ি ছেড়ে অন্য জায়গায় চলে গেছে। এই ধরনের ঘরগুলিকে বলা হয় ‘ইয়ায়োডং’। অন্তত ৬টি প্রজন্ম এ রকম বাড়িতে বসবাস করেছে বলে জানা যায়।

ওই গ্রামের চারকোনা ঘরবাড়িগুলি রয়েছে মাটির নিচে। শীতকালে ওই এলাকার তাপমাত্রা থাকে ১০ ডিগ্রি আর গরম কালে ২০ ডিগ্রি। চীনের পার্বত্য এলাকায় ৪ হাজার বছর আগে থেকে এই ধরনের বাড়ি তৈরি হত বলে জানা যায়।

জানা যায়, হেনান প্রদেশের সানমেক্সিয়া শহরে ওই গুহা-বাড়ি গুলো রয়েছে। বর্তমানে এই গ্রামের সব বাড়িতে বিদ্যুতের সংযোগ সহ সব আধুনিক ব্যবস্থাও রয়েছে।

এই গ্রামের বাড়িগুলো দেখতে পর্যটকেরা সেখানে যায়, এ কারণে বাড়িগুলো সংরক্ষণ করছে স্থানীয় প্রশাসন।

এগুলো ভূমিকম্পেও ক্ষতিগ্রস্ত হয় না এবং সাউন্ড-প্রুফ। এর আশেপাশের জায়গা চাষের কাজে ব্যবহার করা যায়। জানা গেছে, এই ঘরগুলো মাসে ২১ ইউরো ভাড়ায় পাওয়া যায়। আর ৩২ হাজার ইউরোতে বিক্রি হয় ঘরগুলো। এই গুহা-বাড়িগুলোর গভীরতা ২০ থেকে ২৩ ফুট, লম্বায় ৩৩ থেকে ৩৯ ফুট।

আরও পড়ুন ::

Back to top button