করোনা: কর্নাটকে তৃতীয় মৃত্যু, সংক্রমণে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ১৭

Advertisement

করোনা: কর্নাটকে তৃতীয় মৃত্যু, সংক্রমণে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ১৭

ভারতে ক্রমশই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। সেইসঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। শুক্রবার কর্নাটকে ফের মৃত্যু হয়েছে এক ব্যক্তির। কোভিড ১৯ সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। এই নিয়ে তৃতীয় মৃত্যু হল কর্নাটকে। সব মিলিয়ে দেশে এখন করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ১৭। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭২৪। বুধবার কর্নাটকে মারা গিয়েছেন ৭৫ বছরের এক বৃদ্ধা। বৃহস্পতিবার রিপোর্ট এলে দেখা যায় কোভিড ১৯ পজিটিভ। করোনায় আক্রান্ত হয়ে এটি কর্নাটকের দ্বিতীয় মৃত্যু। জানা গিয়েছে সম্প্রতি মক্কা থেকে দেশে ফিরেছিলেন এই বৃদ্ধা।


বেঙ্গালুরুর রাজীব গান্ধী ইনস্টিটিউট অফ চেস্ট ডিজিজে মৃত্যু হয়েছে এই বৃদ্ধার প্রসঙ্গত, দেশের প্রথম মৃত্যুও হয়েছিল এই রাজ্যেই। মারা গিয়েছিলেন ৭৫ বছরের এক বৃদ্ধ। তীর্থ করে সৌদি আরব থেকে হায়দরাবাদে ফিরেছিলেন তিনি। বিমানবন্দরের থার্মাল স্ক্রিনিংয়ে প্রাথমিক ভাবে কিছু ধরা না পড়লেও পরে শ্বাসকষ্ট এবং সর্দি-কাশির সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। পরে কালবুর্গির হাসপাতালে মৃত্যু হয় বৃদ্ধের। এর পরে জানা যায় এই বৃদ্ধের মেয়ে এবং তাঁর চিকিত্‍সকের শরীরেও সংক্রমণের নমুনা পাওয়া গিয়েছিল। ভারতে করোনার সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে মহারাষ্ট্রে।

যদিও আক্রান্তের সংখ্যায় এখন মহারাষ্ট্রকে ছাপিয়ে গিয়েছে কেরল। বৃহস্পতিবার সেখানে নতুন করে ১৯ জন আক্রান্ত হওয়ায় কেরলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৩৭। এরপরেই রয়েছে মহারাষ্ট্র। সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ১৩০ জন। এই রাজ্যে মৃত্যুও হয়েছে তিনজনের। একনজরে কোন রাজ্যে কত মৃত ১। মহারাষ্ট্র- ৩ ২। গুজরাত- ৩ ৩। কর্নাটক- ৩ ৪। দিল্লি, পাঞ্জাব, বিহার, মধ্যপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, হিমাচলপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, জম্মু ও কাশ্মীর—-এই আট রাজ্যের প্রতিটিতে একজন করে করোনাভাইয়ারসের সংক্রমণে মারা গিয়েছেন। ৫। এছাড়াও জয়পুরে এক ইতালীয় পর্যটক এবং মুম্বইতে এক ফিলিপিন্সের বাসিন্দার মৃত্যু হয়েছে কোভিড ১৯ সংক্রমণে।

সুত্র: THE WALL


Recommended For You