চিনের বৃদ্ধির হার অর্ধেক হয়ে ১১ মিলিয়ন মানুষকে দরিদ্র করে দেবে: বিশ্ব ব্যাংক


চিনের বৃদ্ধির হার অর্ধেক হয়ে ১১ মিলিয়ন মানুষকে দরিদ্র করে দেবে: বিশ্ব ব্যাংক

ওয়াশিংটন: করোনাভাইরাস‌ অতি মহামারীর আকার ধারণ করায় বিশ্বজুড়ে অর্থনৈতিক সংকট দেখা দেবে। যার জেরে চিনের বৃদ্ধির হার অর্ধেক হয়ে যাবে যা পূর্ব এশিয়ার ১১ মিলিয়নের মানুষকে দারিদ্র্যের দিকে ঠেলে দেবে। বিশ্বব্যাংক এই বলে সতর্ক করেছে।

বিশ্বব্যাংকের পূর্ব এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলের মুখ্য অর্থনীতিবিদ আদিত্য মাত্তো জানিয়েছেন, অতি মহামারী অপ্রচলিত ভাবে গোটা বিশ্বকে আঘাত করেছে যা বৃদ্ধিকে স্তব্ধ করে দিতে পারে এবং এই অঞ্চলে দারিদ্র বাড়তে পারে। অতি মহামারীর প্রেক্ষিতে এই অঞ্চলের অঞ্চলের ‌‌অবস্থা সম্পর্কে এক রিপোর্ট অনুসারে,একেবারে ‌ সবচেয়ে ভালো প্রেক্ষাপটেও এই অঞ্চলে বৃদ্ধি কমবে, চিনের সম্প্রসারণের গতি ধীর হবে ২.৩ শতাংশ যেখানে ২০১৯ সালে ছিল ৬.১ শতাংশ।
গোটা বিশ্বের জনসংখ্যার দুই-তৃতীয়াংশ ‌ কোন না কোন লকডাউনের অধীনে থাকার কারণে থেমে গিয়েছে ব্যবসা। ভাইরাস যাতে ছড়িয়ে না পড়তে পারে তার চেষ্টা করেছে সেই দেশ যেখানে এই মহামারী উত্‍পত্তি, তার ফলে মন্দা এড়ানো গেলেও অর্থনীতি ধাক্কা খাবে। দুমাস আগে বিশ্ব ব্যাংকের ভবিষ্যত্‍বাণী ছিল চিনের বৃদ্ধির হার হবে ৫.৯ শতাংশ এই বছরে যেটা ধরা হয়েছিল ১৯৯০ এরপর সবচেয়ে খারাপ অবস্থা।


বিশ্বের দ্বিতীয় সর্ববৃহত্‍ অর্থনীতি এক চরম সংটের মুখোমুখি যা প্রতিফলিত হয়েছে ফেব্রুয়ারীতে উত্‍পাদন ক্ষেত্রে সংকোচন এবং শিল্পোত্‍পাদন গত ৩০ বছরে কমে যাওয়া। চিনকে বাদ দিয়ে পূর্ব এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলে ‌ বৃদ্ধি নেমে আসতে পারে ১.৩ শতাংশ এবং ২.৮ শতাংশ সংকোচন হতে পারে সবচেয়ে হতাশাজনক পরিস্থিতিতে। যেখানে গতবছর ছিল ৫.৮ শতাংশ। ওই রিপোর্ট বলছে।চিনের বৃদ্ধির হার অর্ধেক হয়ে ১১ মিলিয়ন মানুষকে দরিদ্র করে দেবে: বিশ্ব ব্যাংক

এখন সবচেয়ে ভালো অবস্থা‌ ধরলে অর্থনৈতিক ধীরগতি থেকে আবার ঘুরে দাঁড়ালে ২৪ মিলিয়ন লোক দারিদ্রের আওতা এড়াতে পারে। অন্যদিকে একেবারে নেতিবাচক মনোভাব মনে করছে অতিরিক্ত ১১মিলিয়ন লোক দরিদ্রের মধ্যে ঢুকে পড়তে পারে যখন অর্থনীতির চরমভাবে সংকোচন হবে। মাত্তো জানিয়েছেন, এই অঞ্চলে ১৭ টি দেশ গ্লোবাল ভ্যালু চেনে রয়েছে এবং যা বিশ্ব বাণিজ্যের ৭০ শতাংশ, এদের সকলের উপর প্রভাব পড়বে। এই অঞ্চলে প্রচুর করোনাভাইরাস আক্রান্ত রয়েছে।

সুত্র: কলকাতা24×7

আপনার মন্তব্য

Recommended For You