প্রযুক্তি

দেশজুড়ে ভয়ঙ্কর Cyber অ্যাটাকের শিকার Cognizant

 

নয়াদিল্লি: তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা কগনিজেন্ট এবার ‘মেজ রানসমওয়ারে’ আঘাতে মুখে পড়ায় চরমভাবে অসুবিধায় পড়েছে সংস্থার ক্লায়েন্টরা। এই তথ্য প্রযুক্তি সংস্থাটির ভারতে রয়েছে প্রায় দুই লক্ষ কর্মী। এই ঘটনার ফলে ‌ ক্লায়েন্টদের সঙ্গে আলোচনা এবং প্রযুক্তিগত তথ্য আদান-প্রদান করার ব্যাপারে অনেকটা রক্ষণাত্মক হয়ে পড়েছে।

সাধারণত ব্যাংকের ওপর সাইবার ক্রিমিনালদের নজর থাকে কারণ সেখান থেকে অর্থ চুরি করা যায়। ২০১৯ সালে আবার এক-তৃতীয়াংশ ম্যালওয়্যার অ্যাটাকের লক্ষ্য হলো কর্পোরেট ইউজার। ২০১৯ সালে ৭,৭৩,৯৪৩ কাসপার স্কাই সলিউশন আঘাত হয়েছে ব্যাংকিং ট্রোজান দ্বারা। এইসব ইউজারদের মধ্যে এক-তৃতীয়াংশ (৩৫ শতাংশ) হল কর্পোরেট সেক্টর যেটা গত তিন বছর ধরে থাকা ২৪-২৫ শতাংশের থেকে এতটা বেড়ে গিয়েছে।

ব্যাংকার ম্যালওয়্যার সাধারণত খুঁ‌জে নিতে চায় ব্যবহারকারীদের ই-পেমেন্ট এবং অনলাইন ব্যাংকিং সংক্রান্ত তথ্য, তারপর হাইজ্যাক করে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড এবং তথ্য পাচার করে সাইবার অ্যাটাকারদের কাছে। বিশেষজ্ঞদের অভিমত, এটা স্পষ্ট বিটুবি সেক্টরে অ্যাটাক করার মাধ্যমে শুধুমাত্র ব্যাংকিং অথবা পেমেন্ট সিস্টেম অ্যাক্সেস করছে তা নয়, পাশাপাশি কর্মীদের এক্সপোজারের মাধ্যমে কোম্পানির আর্থিক সম্পদের নিয়ে অন্য কোন রকম বোঝাপড়ার করার চেষ্টা চালায়।

কগনিজেন্ট-এর পক্ষ থেকে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, মেজ রানসমওয়ারে অ্যাটাক (Maze ransomware) এর ফলে তাদের অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থায় নিরাপত্তায় কিছু সমস্যার জন্য ক্লায়েন্টদের পরিষেবা দেওয়া ব্যাহত হচ্ছে। পাশাপাশি আরও জানানো হয়েছে, অভ্যন্তরীণ প্রতিরক্ষার দায়িত্বে থাকা দলটি যা অন্যতম সাইবার ডিফেন্স সংস্থা সক্রিয়ভাবে নেমে পড়েছে যথাযথো‌ পদক্ষেপ নিতে।‌‌ এই রানসমওয়ারে যথারীতি ব্যবহারকারীদের জোর করে লগ আউট করে দিচ্ছে তাদের নিজস্ব এনক্রিপশন তথ্য দিয়ে।

আর উল্টে মোটা অর্থ দাবি করছে ফের অ্যাক্সেস ফিরিয়ে দেবার জন্য। পাশাপাশি ওই বিবৃতিতে জানানো হয়েছে কগনিজেন্ট সক্রিয় হচ্ছে এই বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য। করোনা ভাইরাস যাতে ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্য দেশজুড়ে লকডাউন শুরু হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কাজ চালিয়ে যেতে এই তথ্য প্রযুক্তি সংস্থাটিও ঝুকেছে ওয়ার্ক ফ্রম হোম করে পরিস্থিতি সামাল দিতে বলে জানিয়েছেন সংস্থার এক মুখপাত্র।

সুত্র:কলকাতা24×7

আরও পড়ুন ::

Back to top button