খেলা

ধোনি আমাকে নয়, দলে চাইতো রায়নাকে : বিস্ফোরক মন্তব্য যুবরাজের


ধোনি আমাকে নয়, দলে চাইতো রায়নাকে : বিস্ফোরক মন্তব্য যুবরাজের


২০১১ বিশ্বকাপে ভারতকে শিরোপা জেতানোর অন্যতম নায়ক ছিলেন যুবরাজ সিং। ব্যাটে-বলে দুরন্ত পারফরম্যান্সে টুর্নামেন্টের সেরা ক্রিকেটারও ছিলেন তিনি। অথচ এই যুবরাজের দলে সুযোগ পাওয়াটাই নাকি কঠিন হয়ে পড়েছিল।

ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির যে পছন্দ ছিল সুরেশ রায়নাকে। রায়নাকে দলে নিতে সবসময়ই চেষ্টা করতেন ধোনি। এতদিন পর এই ঘটনা ফাঁস করলেন স্বয়ং যুবরাজ।

পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে দুর্দান্ত ছিলেন যুবরাজ। কিন্তু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচেও নাকি তিনি অটোমেটিক চয়েজ ছিলেন না। কারণ সেই একটাই। ধোনির পছন্দের খেলোয়াড় কোটায় যে জায়গা নিশ্চিত ছিল রায়নার, যুবরাজ ছিলেন অনিশ্চিত। শেষ পর্যন্ত টিম ম্যানেজম্যান্ট দুজনকেই খেলাতে রাজি হয়। যুবির মতে, আসলে তাকে বাদ দেয়ার উপায় ছিল না তখন।


যুবরাজ বলেন, ‘সুরেশ রায়নাকে ধোনি তখন খুব পছন্দ করত, সমর্থন জানাতো। প্রত্যেক অধিনায়কেরই পছন্দের খেলোয়াড় থাকে। আমার মনে হয়, মাহির তখন পছন্দের খেলোয়াড় ছিল রায়না।’

ভারতের সাবেক এই বাঁহাতি অলরাউন্ডার যোগ করেন, ‘তখন ইউসুফ পাঠানের পারফরম্যান্সও ভাল ছিল। আমিও ভাল খেলছিলাম। ব্যাটে রান আসছিল, উইকেটও নিচ্ছিলাম। আর রায়না খুব একটা ভাল ছন্দে ছিল না। দলে তখন বাঁ-হাতি স্পিনার বলতে কেউ ছিল না। এ দিকে আমি উইকেটও নিচ্ছিলাম। তাই আমাকে দলে না নিয়ে উপায় ছিল না।’

বোঝাই যাচ্ছে, ধোনির প্রতি কিছুটা ক্ষোভ এখনও রয়ে গেছে যুবরাজের। পরের কথায় সেটা আরও পরিষ্কার হলো। যুবরাজ জানান, তার পছন্দের অধিনায়ক ছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলি।


কারণটাও ব্যাখ্যা করেন, ‘ভারতীয় অধিনায়কদের মধ্যে তিনিই (সৌরভ) সবচেয়ে বেশি উৎসাহ জুগিয়েছিলেন আমাকে। দাদা তরুণ প্রতিভা লালন-পালন করতেন। উনি বলতেন, চার-পাঁচ জন ছেলেকে দরকার যারা কিনা শক্তিশালী দল গড়ে তুলতে সাহায্য করবে। আর এদের সবারই পাশে ছিলেন দাদা।’

সূত্র : জাগো নিউজ


Related Articles

Back to top button