রাজ্য

লকডাউনে কেন্দ্রকে যে চার ‘সাজেশন’ দিয়েছেন মমতা

 

কলকাতা: সোমবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক সারলেন দেশের একাধিক রাক্যের মুখ্যমন্ত্রী। ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য একগুচ্ছ পরামর্শ দিয়েছেন তিনি কেন্দ্রকে।

আগেই বলেছিলেন যে তিনি চান লকডাউন বাড়াতে। এদিন ফের একবার সেকথা বলেছেন তিনি। রাজ্য সরকারের আর্থিক দুরবস্থার কথাও তুলে ধরেছেন তিনি। টানাটানির মধ্যেও চিকিত্‍সা খাতে অনেক খরচ হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের সঙ্গে কোনও সংঘাত চান না বলে উল্লেখ করে মমতা বলেন, ‘আমি অন্যান্য রাজ্যের সঙ্গেও কথা বলব। তারা কী পরিকল্পনা নিচ্ছে, সেটাও না দরকার।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রকে একগুচ্ছ সাজেশন দেন। বলেন,
১. আন্তর্কাতিক বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখতে হবে।
২. আন্তর্জাতিক সীমান্ত বন্ধ করে দিতে হবে।
৩. আন্তঃরাজ্য বাস পরিষেবা বন্ধ রাখতে হবে।
৪. দূরপাল্লার ট্রেন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা রাখতে হবে।

কেন্দ্রের ভুমিকার সমালোচনা করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘একদিকে বলছে লকডাউন খুব কড়া করতে হবে। আবার বলছে সব দোকান খুলে দাও। আমরা চাই তো সব দোকান খুলতে। কিন্তু তাহলে তো লোকে যাতায়াত করবে। ভিড় হবে। ভিড় বাড়লে লকডাউন ব্যর্থ হবে। তাহলে কোনটা করব? কেন্দ্র যা বলছে, তাতে ক্ল্যারিটির অভাব আছে। আমরা ঝগড়া করতে চাই না, কোভিডের ফাইট করতে চাই মানুষের স্বার্থে। আমি তো লকডাউনের পক্ষে। তাহলে দোকান কী করে খুলব?

দোকান খুললে লোককে কী করে বলব, দোকানে যাবেন না?’ মমতা বলেন, ‘আমি মুখ্যসচিবকে বলেছি ক্যাবিনেট সেক্রেটারিকে চিঠি পাঠাতে যাতে একটা ক্ল্যারিটি দেয় আমাদের। রেড, অরেঞ্জ, গ্রিন জোন গুলির ক্যাপাসিটি কি হবে তা নিয়ে আমরা পরশু আলোচনা করব।আশা করি ক্ল্যারিটি দেওয়া হবে। সেন্ট্রাল পলিসি ঠিক করে দেয়, প্রয়োগ করতে হয় রাজ্যকে।

সুত্র:কলকাতা24×7

আরও পড়ুন ::

Back to top button