পশ্চিম মেদিনীপুর

ফের করোনা আক্রান্ত রোগীর খোঁজ মেদিনীপুরে, উদ্বিগ্ন জেলা থেকে রাজ্য প্রশাসন !

 

পশ্চিম মেদিনীপুর: আবারও পশ্চিম মেদিনীপুরে দুই ব্যক্তির শরীরে মিলল করোনাভাইরাস । ইতিমধ্যেই দুজনকে পুর্ব মেদিনীপুরের বড়মা কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের এক ইন্টার্নের বাবা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে। তাঁর রিপোর্ট হাতে আসতেই নড়েচড়ে বসল জেলা থেকে রাজ্য প্রশাসন। জানা গেছে, মেডিক্যাল কলেজের ওই মহিলা ইন্টার্নের বাড়ি হাওড়া জেলার সালকিয়া এলাকায়।

গত দু’দিন আগে ওই ইন্টার্ন বাবা-মাকে নিজের কাছে নিয়ে আসেন। এরপর অসুস্থ বোধ করায় দুজনকেই মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সোমবার দু’জনের লালারসের নমুনা পাঠানো হয় পরীক্ষার জন্য। বেশি রাতে ওই ইন্টার্নের বাবার রিপোর্টে পজেটিভ ধরা পড়ে বলে জানান জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ গিরিশ চন্দ্র বেরা। তিনি বলেন, ”পজিটিভ রিপোর্ট আসার পর ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীদের কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

চিকিত্‍সার জন্য ওই ব্যক্তিকে পাঠানো হয়েছে বড়মা কোভিড হাসপাতালে।” অন্যদিকে পশ্চিম মেদিনীপুরের ক্ষীরপাইয়েও করোনায় আক্রান্ত এক বৃদ্ধার হদিস মিলেছে। তাঁকেও বড়মা হাসপাতালে চিকিত্‍সার জন্য পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক। ক্ষিরপাইয়ে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা ওই বৃদ্ধার দেহে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে সোমবারই।

এপ্রিল মাসের গোড়ায় পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুরে একই পরিবারের তিনজনের দেহে করোনা ভাইরাসের জীবাণু পাওয়া যায়। তখন জেলার পরিকাঠামো তৈরি না হওয়ায় বাবা-ছেলে ও বৌমাকে করোনার চিকিত্‍সার জন্য কলকাতায় বেলেঘাটা আইডিতে পাঠানো হয়েছিল। তাঁরা তিনজনেই পরে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন। কিছুদিন আগে জেলায় সাতজন আরপিএফ কর্মীর করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছিল।

বড়মা কোভিড হাসপাতালে চিকিত্‍সার পর তাঁদের মধ্যে এখন ছ’জনই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। একজন এখন চিকিত্‍সাধীন। আবার করোনায় আক্রান্ত দুজনের খোঁজ মেলায় উদ্বিগ্ন জেলা প্রশাসন। বর্তমানে অরেঞ্জ জোনে রয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুর। গোটা জেলায় কন্টেনমেন্ট জোন পাঁচটি। এরমধ্যে একটি মেদিনীপুর শহরে।

সুত্র: THE WALL

আরও পড়ুন ::

Back to top button