রাজ্য

রাজ্যে শুরু সরকারি বাস পরিষেবা, লোকসানের আশঙ্কায় পথে নামলো না বেসরকারি বাস !

 

ওয়েবডেস্ক:‌ গ্রিন জোন দক্ষিণ দিনাজপুরে শুক্রবার যাত্রী পরিষেবা শুরু করল উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা। করোনা ভাইরাসের নিরিখে রাজ্যে যে সব জেলা গ্রিন জোন সেখানে বাস পরিষেবা শুরুর ব্যাপারে আগেই ছাড় দিয়েছিল সরকার। তবে যাত্রী পরিবহণের ব্যাপারে যথেষ্ট কড়াকড়ি করা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী এখন কুড়ি জনের বেশি যাত্রী তোলা যাবে না বাসে।

তাই লোকসানের আশঙ্কায় বাস চালাননি বেসরকারি বাস মালিকরা। এজন্য বেসরকারি বাস চলাচল এখনও বন্ধ। তবে এতদিন সরকারি বাসও চলেনি। সরকারি বাসে সাধারণত ৬০টি করে আসন থাকে কিন্তু এখন সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করার স্বার্থে একটি বাসে একসঙ্গে ২০ জনের বেশি উঠতে পারবেন না। পরিবহণ দফতর সূত্রে জানা গেছে একটি সিটে জানলার ধারে একজন যাত্রী বসলে অন্য জন বসবেন তার পিছনের সিটের অন্য প্রান্তের আসনে।

অর্থাত্‍ প্রতি সারিতে এক জন যাত্রী বসবেন এবং সামনাসামনি নয়। পাশাপাশি কোনও যাত্রী বসবেন না। উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার বালুরঘাট শাখার মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার অশোক চক্রবর্তী বলেন, ‘আজ দুটো রুটে বাস চলাচল করবে। একটি বালুরঘাট থেকে জেলার উত্তর প্রান্ত কুশমণ্ডি পর্যন্ত এবং অপরটি বালুরঘাট থেকে জেলার দক্ষিণ প্রান্ত দৌলতপুর পর্যন্ত।

বাসের কর্মীরা সুরক্ষামূলক পোশাক পরে বাসে উঠেছেন।’ বাসচালক সুকুমার মণ্ডল বলেন, ‘গাড়িতে কুড়ি জনের বেশি যাত্রী নেওয়া হবে না। মাস্ক পরে না থাকলে কোনও যাত্রীকে বাসে তোলা হবে না। প্রয়োজনের খাতিয়ে অনেককেই বেরতে হচ্ছে। তাই বাস চলাচল শুরু হওয়ায় কাজে যাওয়ার ব্যাপারে অনেকেরই সুবিধা হবে বলে জানিয়েছেন যাত্রীরা। ২৯ এপ্রিল সরকার জানিয়েছিল ৩ মে প্রথম ধাপের লকডাউন উঠে গেলে সরকারি ও বেসরকারি বাস চলতে শুরু করবে রাজ্যের গ্রিন জোনগুলিতে।

সরকারি বাসে যাত্রী পরিবহণের যে নিয়ম করা হয়েছে বেসরকারি বাসগুলিকেও তা মেনে চলতে হবে বলে জানিয়েছে পরিবহণ দফতর। এই শর্ত তারা মেনে চলছে কিনা তার উপর পুলিশ ও প্রশাসন নজর রাখবে বলেও পরিবহণ দফতর সূত্রে জানা গেছে। এতে লোকসানের আশঙ্কা থাকায় বেসরকারি বাস রাস্তায় নামেনি।

সুত্র: THE WALL

আরও পড়ুন ::

Back to top button