ঝাড়গ্রাম

ঝাড়গ্রাম জেলা সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে শুরু হচ্ছে করোনার প্রাথমিক পরীক্ষা, বসেছে ট্রু-নাট যন্ত্র

স্বপ্নীল মজুমদার, ঝাড়গ্রাম: এবার ঝাড়গ্রাম জেলা সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে চিকিসাধীন রোগীদের চটজলদি হবে করোনা পরীক্ষা। করোনা পরীক্ষার জন্য হাসপাতালের নাইট শেল্টারে বসানো হয়েছে ট্রু-নাট যন্ত্র। সোমবার ১৮ মে ওই যন্ত্রের মাধ্যমে ঝাড়গ্রাম জেলায় এই প্রথম করোনা পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। এজন্য ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ-এর (আইসিএমআর) প্রয়োজনীয় অনুমোদন মিলেছে।

জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই যন্ত্রে প্রতি ঘণ্টায় দু’জন রোগীর নমুনা পরীক্ষা করা যাবে। তবে জরুরি ভিত্তিতে সীমিত সংখ্যক রোগীর প্রাথমিক করোনা পরীক্ষা হবে ওই যন্ত্রে। সূত্রের খবর, শনিবার নিভৃতবাসে থাকা এক সন্দেহভাজন রোগীর নমুনা পরীক্ষামূলক ভাবে পরীক্ষার জন্য যন্ত্রটি ব্যবহার করার চেষ্টা হয়েছিল। কিন্তু আইসিএমআর-এর প্রয়োজনীয় অনুমতি না থাকায় নমুনা পরীক্ষা করা যায়নি। অবশেষে অনুমোদন মিলেছে। সোমবার থেকে নমুনা পরীক্ষা শুরু হবে। তবে ওই যন্ত্রে কোনো রোগীর রিপোর্ট পজিটিভ হলে, সেই রোগীর ফের নমুনা সংগ্রহ করে সম্পূর্ণ নিশ্চিত হওয়ার জন্য মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের ল্যাব-এ পাঠানো হবে।

এতদিন জেলায় করোনা পরীক্ষার কোনো ব্যবস্থা ছিল না। জেলার বিভিন্ন সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতাল, ভ্রাম্যমাণ গাড়িতে ও চেক পোস্টের কিয়স্কে রোগীদের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে সেই নমুনা মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের ল্যাব-এ পরীক্ষার জন্য পাঠানো হচ্ছিল। পরে কলকাতার একটি ল্যাবে নমুনা পাঠানো হয়। এখন রাজ্য সরকারের নির্দেশে ফের মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজে নমুনা পাঠানো হচ্ছে। কিন্তু সেই রিপোর্ট আসতে কয়েকদিন সময় লেগে যায়। তাই, ঝাড়গ্রাম জেলা সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে করোনা পরীক্ষা শুরু হলে দ্রুত রিপোর্ট পাওয়া যাবে। কোনো রোগী করোনা আক্রান্ত হলে সঙ্গে সঙ্গে জানা যাবে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button