দঃ ২৪ পরগনা

দক্ষিণ সুন্দরবনের আমফানের ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য জীবিদের সাহায্যের হাত বাড়ালো বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

দক্ষিণ সুন্দরবনের আমফানের ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য জীবিদের সাহায্যের হাত বাড়ালো বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

 

দক্ষিণ ২৪ পরগনা , রবীন মজুমদার Innerwheel club of Calcutta metropolitan, IMS ladies organisation kakdwip ও Canara Bank officers এর উদ্যোগে আজ ৫০০ জন আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত দোস্ত আছে মৎস্যজীবীদের ত্রাণ সামগ্রী দান করা হলো।

দক্ষিণ সুন্দরবনের আমফানের ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য জীবিদের সাহায্যের হাত বাড়ালো বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

 

করোনা ভাইরাস এর জেরে প্রায় তিন মাস ধরে চলছে সারাদেশে লকডাউন। তার উপর বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড় আমফান দক্ষিণ সুন্দরবনের উপকূলবর্তী এলাকায় যে তাণ্ডবলীলা চালিয়ে ছিল তার ফলে এই অঞ্চলের ৭০ শতাংশ গরিব মৎস্যজীবীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। একেতো লোকজনের জন্য সমুদ্রে মাছ ধরতে যাওয়া নিষেধ জারি করেছে পশ্চিমবঙ্গ মৎস দপ্তর।

দক্ষিণ সুন্দরবনের আমফানের ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য জীবিদের সাহায্যের হাত বাড়ালো বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

 

তার ওপর বিধ্বংসী আমফান। এ যেন মরার উপর খাড়ার ঘা। দক্ষিণ সুন্দরবনের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ মানুষের প্রধান জীবিকা মৎস্য ব্যবসা। বিধ্বংসী আমফান এখানে ঘণ্টায় ১৬০ থেকে ১৮০ কিলোমিটার বেগে ধুয়ে মুছে সাফ করে দিয়ে গেছে গ্রামের সমস্ত কাঁচা বাড়ি।

দক্ষিণ সুন্দরবনের আমফানের ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য জীবিদের সাহায্যের হাত বাড়ালো বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

 

আর তাদেরই মধ্যে রয়েছে অধিকাংশ মৎস্যজীবী। আজ ১২ দিন পর এই সমস্ত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলি দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার কাকদ্বীপ ব্লক এর একটি ত্রাণশিবির ব্যবস্থা করেন।

দক্ষিণ সুন্দরবনের আমফানের ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য জীবিদের সাহায্যের হাত বাড়ালো বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

 

এই ত্রাণশিবিরে বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ সহ ছিলেন হারউড পয়েন্ট কোস্টাল থানার পুলিশ আধিকারিক ও ওসি কৃষ্ণেন্দু বিশ্বাস এবং বিভিন্ন সমাজসেবক। ত্রাণসামগ্রী মধ্যে তেল নুন বিস্কুট চাল ডাল আলু ও সাথে জামাকাপড় তুলে দেওয়া হয় গরীব-দুঃস্থদের হাতে।

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button