ঝাড়গ্রাম

বাঁশতলার বিপজ্জনক সেতু দিয়েই চলছে ঝুঁকির যাতায়াত

বাঁশতলার বিপজ্জনক সেতু দিয়েই চলছে ঝুঁকির যাতায়াত

স্বপ্নীল মজুমদার, ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রাম জেলার ছোট্ট অখ্যাত গ্রাম বাঁশতলা। এই গ্রামটি বিখ্যাত হয়ে গিয়েছিল মাওবাদীদের জন্য এই গ্রামেই ছিল মাওবাদীদের ডেরা। অথচ সেই বাঁশতলা যাওয়ার রাস্তায় একটি সেতু বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে। প্রায় পাঁচ বছর হল ঝাড়গ্রাম-মানিকপাড়া সংযোগকারী প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনায় রাস্তা তৈরি হয়ে গিয়েছে। কিন্তু বাঁশতলা খালের বিপজ্জনক দুর্বল সেতুটির সংস্কার হয়নি।

স্থানীয় বাসিন্দাদের আশঙ্কা, যে কোনও সময় সেতুটি ভেঙে পড়ে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। রাস্তা হলেও দুর্বল সেতুর জন্য ওই রুটে বাস-ট্রেকার চালানো যাচ্ছে না। ঝাড়গ্রাম থেকে বাঁশতলা হয়ে মানিকপাড়া যাওয়ার ওই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন কয়েকশো ট্রাক্টর, গাড়ি ও মোটরবাইক চলে। যে কো‌নও সময় বিপদের আশঙ্কা রয়েছে। অথচ বাঁশতলায় বেহাল সেতুটি বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে বছরের পর বছর।

২০১৪ সালে তৎকালীন পশ্চিম মেদিনীপুর জে‌লা পরিষদ থেকে রাস্তাটি প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনায় পাকা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ২০১৫ সালে ঝাড়গ্রাম থেকে বাঁশতলা হয়ে লালগেড়িয়া পর্যন্ত ১২ কিমি পিচ রাস্তাটি তৈরি হয়। কিন্তু বাঁশতলা খালের উপর সেতুটি তখন ভালই ছিল। ২০১৮ সালের আগস্ট মাসে নিম্নচাপের বৃষ্টিতে জল বেড়ে গিয়ে ও জলের তোড়ে ১৫ মিটার লম্বা সেতুটির একদিক বসে যায়। রাস্তার সঙ্গে সংযোগকারী একদিকের মাটি ধুয়ে চলে যায়। তারপরে বালির বস্তা দিয়ে কোনও মতে রাস্তার সঙ্গে সেতুর সংযোগ করে রাখার ব্যবস্থা হয়েছে। কিন্তু প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়েই যাতায়াত করেন বড়বাড়ি, গোদারাস্তা, রাসুয়া, কুশপাড়া, ইন্দ্রাবনি, মানিকপানার বাসিন্দারা।

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button