আন্তর্জাতিক

গরিলার করোনার টেস্ট করতে এলাহি কান্ড!

গরিলার করোনার টেস্ট করতে এলাহি কান্ড!

 

ওয়েবডেস্ক : হাসপাতালের বেডে শুয়ে আছে দৈত্যাকার এক গরিলা। তাকে ঘিরে রয়েছেন একাধিক চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী। সেই গরিলার হুঁশ নেই। হাত, পা শক্ত করে বাঁধা। দেখেই শিউরে উঠবেন এমন ছবি! কিন্তু এই ছবির আগের পরিস্থিতি একবার ভেবে দেখুন। কীভাবে এমন বিরাট আকারের গরিলাকে হাসপাতালের বেডে আনা হলো।

স্বাস্থ্যকর্মী থেকে শুরু করে চিকিৎসক, প্রত্যেকেই যেন হিমশিম খেলেন। তবে দিনের শেষে তাদের সবার মনে স্বস্তি। সেই গরিলার করোনা টেস্টের রিপোর্ট এসেছে নেগেটিভ। তবে তার শরীরের একাধিক জায়গায় চোট লেগেছে। সেই চোট সারতে দিনকয়েক সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন ডাক্তাররা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার মিয়ামি শহরের ঘটনা। মিয়ামির চিড়িয়াখানায় থাকে শাঙ্গো নামের ওই গরিলা। কয়েক দিন আগে শাঙ্গো নিজের ভাই বার্নির সঙ্গে হাতাহাতি করে। রক্তারক্তি কাণ্ড হয়।

আরও পড়ুন : BIG BREAKING: সৌরভের বাড়িতে করোনা হানা আক্রান্ত দাদা স্নেহাশিস !

৩২ বছরের শাঙ্গো শরীরের একাধিক জায়গায় চোট পায়। আহত হয় বার্নিও। তবে তার চোট অতটা গুরুতর নয়। এরপরই শাঙ্গো কে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানে তার এক্স-রে, আলট্রাসাউন্ড, টিবি টেস্ট করানো হয়।

চিকিৎসকরা ঠিক করেন একেবারে করোনা টেস্টও করে নেওয়া হবে। কারণ কয়েকদিন আগেই জ্বরে ভুগেছিল শাঙ্গো। কিন্তু বিশালাকার গরিলার করোনা টেস্ট করতে গিয়ে হিমশিম খান ডাক্তাররা। শাঙ্গোর করোনা টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। হাফ ছেড়ে বাঁচেন চিকিৎসকরা।

এমনিতে ভাই বার্নির সঙ্গে শঙ্গোর দারুন ভাব। দুজনে একেবারে গলায় গলায় বন্ধু। তাই শাঙ্গো আর বার্নির মারামারির দৃশ্য দেখে চিড়িয়াখানার কর্মীরা প্রথমে অবাক হন। শাঙ্গোকে মিয়ামির চিড়িয়াখানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে এখন কিছুদিন তাকে ভাইয়ের সঙ্গে রাখা হবে না।

আরও পড়ুন : কোকড়ানো চুল সোজা করার সহজ উপায়

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শাঙ্গোর শরীরের কোনও হাড় ভাঙেনি। তবে কিছু জায়গায় গুরুতর চোট রয়েছে। সেগুলো সারতে সময় লাগবে। এরই মধ্যে শাঙ্গো জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ভার্চুয়াল জগতে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button