রাজনীতি

বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়াকে কেন্দ্র করে পার্থ চ্যাটার্জি কে কড়া ভাষায় কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেতা বাবান ঘোষ!

বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়াকে কেন্দ্র করে পার্থ চ্যাটার্জি কে কড়া ভাষায় কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেতা বাবান ঘোষ!

নিজস্ব প্রতিনিধি- কলকাতা: প্রতিদিন প্রতিনিয়ত শাসক-বিরোধী তরজা সংবাদ শিরোনামে উঠে আসছে। আর এরই মধ্যে গতকাল একটি সাংবাদিক সম্মেলন করে তৃণমূল নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার একটি বৈঠক করেছিলেন। আর তাতেই পার্থ চট্টোপাধ্যায় একটি লিস্ট জারি করে সংবাদমাধ্যমকে জানান বিজেপি সংগঠন BJMTU থেকে কয়েকশো নেতাকর্মীরা তৃণমূলে যোগদান করেছেন। আর এই সাংবাদিক সম্মেলন কে একেবারেই মিথ্যে ভূয়া বলে উড়িয়ে দেন বিজেপি নেতা তথা ভারতীয় জনতা মজদুর ট্রেড ইউনিয়ন অর্থাৎ বিজেপির একটি শ্রমিক সংগঠন এর রাজ্য সভাপতি বাবান ঘোষ।

গতকাল বাবান ঘোষ সংবাদমাধ্যমকে জানান যে, আজকের সংবাদ মাধ্যমের কাছ থেকে জানতে পারি তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চ্যাটার্জি প্রেস করে বলেছেন নাকি, ভারতীয় জনতা মজদুর ট্রেড ইউনিয়ন ঘাটাল সাংগঠনিক জেলা এবং পূর্ব বর্ধমান সাংগঠনিক জেলা গোপাল এবং বিশ্বরূপ নামে দুইজন ব্যক্তি, নাকি তৃণমূলের জয়েন করেছেন। আমি সম্পূর্ণ দায়ভার অস্বীকার করছি এবং জানাচ্ছি ওরা বি জে এম টি ইউ কেউ না।

[ আরও পড়ুন : আরও পড়ুন : কাশ্মীর ইস্যুতে সৌদিকে চাপ দিয়ে উল্টো চাপে পাকিস্তান ]

তৃণমূল কংগ্রেস সম্পূর্ণ চালাকি সাথে আমাদের সংগঠনের নাম করে আরেকটি রেজিস্ট্রেশন বার করে ওরা নিজেদের লোককে ওখানে বসেই রেখেছেন এবং তাদেরকেই আবার জয়েন করাচ্ছে তৃণমূলে। তৃণমূল মানে ডুবন্ত নৌকা সারে ডুবন্ত নৌকার ঢেউ ওঠে না এটা সবাই জানে। কোন দিনও একই সংগঠনের নামে আলাদা রেজিস্ট্রেশন বেরোয় বেরোয় না রাজ্য সরকার মদতে তৃণমূল এগুলো করছে। এই মিথ্যে অন্যায় অনৈতিক কাজের সম্পূর্ণ দায়ভার পার্থ চ্যাটার্জি কে নিতে হবে।

ওরা যদি বিজেপি প্রাথমিক সদস্য হয় তাহলে সেটা বিজেপি বলবে আমার জানা নেই কিন্তু আমাদের ওরা কেউ না। খুবই পরিকল্পিতভাবে শ্রমিক সংগঠনের আন্দোলনকে বন্ধ করে দেওয়ার জন্য এই নিজ ঘৃণ্য কাজ তৃণমূল বরাবর করে আসছে। আমি বিজেপি রাজ্য সভাপতির কাছেও জানিয়েছি। তৃণমূলের অত্যাচারে শোষণ-নিপীড়নের ফলে শ্রমিকরা আজ দিশেহারা।

[ আরও পড়ুন : স্বাধীনতা দিবসে মুখ্যমন্ত্রীকে একী বললেন মুকুল-পুত্র ]

“নো-চান্দ্রগীরি নো-দাদাগিরি” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে আমরা শ্রমিক সংগঠনের বিস্তার লাভ করেছে শ্রমিকরা মাথার ছাতা খুঁজে পেয়েছে। ছেড়ে যাওয়ার কোন প্রশ্নই নেই ওরা আমাদের কেউ না আমাদের প্রায় দশ লক্ষ এক টিম মেম্বার পুরো পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে রয়েছে। পুরো সংগঠন ভারতীয় জনতা পার্টির আদর্শে বিশ্বাসী। ২০২১ সালে তৃণমূলে পরাজয় বুঝতে পেরে পার্থ চ্যাটার্জি দিবা স্বপ্ন দেখছে ও ভুলভাল বকছে।

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button