রাজনীতি

মদন মিত্র ভয় পেয়ে তিনজনকে গ্রেফতার করিয়েছেন: দিলীপ ঘোষ

লুকিয়ে তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্রর ভিডিওগ্রাফি করার অভিযোগে বালিগঞ্জ থেকে দুই বিজেপি কর্মী সহ তিন জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় মদন মিত্রকেই পাল্টা কটাক্ষ করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তাঁর প্রশ্ন, অবৈধ কাজ না করলে এত ভয় কিসের মদন মিত্রর? শুক্রবার ফেসবুক লাইভে মদন মিত্র বলেন, প্রয়োজনের কথা বলে দেখা করতে চেয়ে শুক্রবার বালিগঞ্জে অটোমোবাইল অ্যাসোসিয়েশন অফ ইস্টার্ন ইন্ডিয়ার অফিসে আসেন তিনজন।

অভিযোগ, কথা বলার অছিলায় মোবাইলে তাঁর ভিডিওগ্রাফি করা শুরু হয়। বিষয়টি নজরে আসে মদন মিত্রর ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীর। পরে বালিগঞ্জ থানার পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করে।জানা গিয়েছে, ধৃত অঙ্কন দত্ত, সঞ্জয় চক্রবর্তী, মৃণাল মুখোপাধ্যায় বেলঘরিয়ার বাসিন্দা।

আরও পড়ুন : মদন মিত্রের বিরুদ্ধে স্টিং অপারেশন, ধৃত ৩ (ভিডিও সংযুক্ত)

ধৃতদের মধ্যে একজন প্রেসিডেন্সির পড়ুয়া। তিনজনেরই মোবাইল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। কী কারণেই মদন মিত্রের উপর গোপনে নজরদারি চালাচ্ছিল ওই তিন যুবক? তা এখনও স্পষ্ট নয় তদন্তকারীদের কাছে । পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, ধৃতদের জেরার পরই পুরো বিষয়টি স্পষ্ট হবে।

তাঁদের মোবাইল খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে স্থানীয় সূত্রের খবর, ধৃতরা বিজেপি কর্মী। তাই স্বাভাবিকভাবেই গোটা ঘটনার পিছনে রাজনীতির যোগ থাকার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিতে পারছেন না তদন্তকারীরা। শনিবার দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘মদনমিত্র যদি কিছু অন্যায় কাজ করে থাকেন তাহলে ভয় আছে।

আমার কাছেই তো কত লোক যায়। আমি তাদের চিনিও না।’ রাজ্য বিজেপি সভাপতির দাবি, ‘তৃণমূল কংগ্রেস দলীয় নেতাদের বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। এমপিরাও কারও সঙ্গে দেখা করেন না। দেখা করতে গেলে মোবাইল ফোন জমা রেখে ঢুকতে হয়। আমরা জানি না কেন এর প্রয়োজন হয়?’

 

সুত্র: কলকাতা24×7

আরও পড়ুন ::

Back to top button