আন্তর্জাতিক

‘দৈত্যাকৃতির’ আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপনাস্ত্র প্রদর্শন করলো এই দেশ

‘দৈত্যাকৃতির’ আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপনাস্ত্র প্রদর্শন করলো এই দেশ

দৈত্যাকৃতির’ আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপনাস্ত্র প্রদর্শন করেছে উত্তর কোরিয়া। শনিবার দেশটির সামরিক মহড়ায় এটি প্রদর্শন করা হয়।

বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন, বিশাল গাড়িতে করে আনা ক্ষেপণাস্ত্রটি বাহিনীতে যুক্ত হলে এটি হবে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র।

ওপেন নিউক্লিয়ার নেটওয়ার্কের উপপরিচালক মেলিসা হ্যানহাম বলেন, ‘এই ক্ষেপণাস্ত্রটি একটি দৈত্য।’

২০১৮ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কিম জং উনের বৈঠকের পর এই প্রথম উত্তর কোরিয়া আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপনাস্ত্র প্রদর্শন করলো।

আরও পড়ুন : ‘হোয়াইট হাউজের যে অনুষ্ঠান থেকে দ্রুত ছড়িয়েছে করোনা’

সামরিক মহড়ায় যুক্তরাষ্ট্রের নাম উল্লেখ না করে কিম জং উন বলেছেন, ‘আমরা আমাদের জাতীয় প্রতিরক্ষা এবং আত্মরক্ষামূলক যুদ্ধ সক্ষমতা বৃদ্ধি অব্যাহত রাখব।’

দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি ব্যহত হওয়ার জন্য উন আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা, ঘূর্ণিঝড় ও করোনাভাইরাসকে দায়ী করেছেন।

জনগণের আস্থা রক্ষায় সফল না হাওয়ায় তিনি লজ্জিত বলেও জানান কিম।

উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা বলেন, ‘আমি লজ্জিত যে আপনাদের অগাধ আস্থার প্রতিদান আমি কখনোই দিতে পারিনি। আমাদের জনগণকে কষ্টকর জীবনযাপন থেকে বের করে আনতে আমার প্রচেষ্টা ও আন্তরিকতা যথেষ্ঠ নয়।’

 

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button