আন্তর্জাতিক

নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে দ্বিতীয় দিনেও বিক্ষোভ থাইল্যান্ডে

নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে দ্বিতীয় দিনেও বিক্ষোভ থাইল্যান্ডে

থাইল্যান্ডে সরকারের নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে দ্বিতীয় দিনের মধ্যে রাজধানী ব্যাংককে বিক্ষোভ করেছে বিক্ষোভকারীরা। বৃহস্পতিবার যেখানে বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছিল সেখান থেকে এক দশমিক ৬ কিলোমিটার দূরে শুক্রবার সমবেত হয় কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী।

ফেসবুক পেজে বিক্ষোভকারীদের অন্যতম নেতা পানুপং জাদনং লিখেছেন, ‘পুলিশ বিক্ষোভ ঠেকাতে রাতচাপ্রাসং বন্ধ করে দিয়েছে..আমাদের অবরোধ এড়াতে হবে। লড়াই!!!’

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বিক্ষোভকারীরা প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুত চ্যান ওঁচার পদত্যাগ দাবিতে স্লোগান দিয়েছে। এক পর্যায়ে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের নতুন জমায়েত স্থল ঘিরে ফেলে।

থাইল্যান্ডে গত তিন মাস ধরে রাজা মহা ভাজিরালংকর্নের ক্ষমতা হ্রাস এবং প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুত চ্যান ওঁচার পদত্যাগ দাবিতে বিক্ষোভ চলছে। বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ ঠেকাতে সরকার পাঁচ জনের বেশি জড়ো হওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

আরও পড়ুন: চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিটের জন্য প্রস্তুতি নিতে বললেন জনসন

এদিকে প্রধানমন্ত্রী ওঁচা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন তিনি পদত্যাগ করছেন না।

তিনি বলেছেন, ‘আমি পদত্যাগ করছি না। সরকারকে অবশ্যই জরুরি অবস্থার ডিক্রি জারি করতে হবে। আমাদের প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে, কারণ পরিস্থিতি সহিংস হয়ে উঠছে… এটি পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে ৩০ দিন বা তারচেয়ে কম সময়ের জন্য কার্যকর থাকবে।

বিক্ষোভকারীদের প্রতি হুঁশিয়ারি দিয়ে ওঁচা বলেছেন, ‘অপেক্ষা করুন এবং দেখুন…আপনারা অন্যায় করলে আমরা আইনকে ব্যবহার করবো।

 

আরও পড়ুন ::

Back to top button