পূর্ব মেদিনীপুর

পূর্ব মেদিনীপুরের পটাশপুরে বিজেপি করার অপরাধে হুমকি তৃণমূলের

প্রতিবেদকের তোলা ছবি

নিজস্ব প্রতিনিধি, পটাশপুর: গত ১লা অক্টোবর সাত সকালে অন্যান্য দিনের মতো নিজের ভুষিমাল দোকান খুলতে আসে ওই বিজেপি কর্মী পশুপতি রায়। দোকান খোলার কিছু সময়ের মধ্যেই তৃণমূলের হার্মাদরা এসে তাঁর দোকানে চড়াও হয়ে হুমকি দিয়ে তাঁর দোকান বন্ধ করে দেয়।

এমতাবস্থায় ওই বিজেপি কর্মী আতঙ্কিত হয়ে পটাশপুর থানায় গিয়ে অভিযোগ করলে পুলিশ তাঁকে দোকান খোলার আশ্বাস দেয়। যার ফলে পশুপতিবাবু ফের দোকান খোলে তা জানতে পেরে স্থানীয় কিছু তৃণমূলের নেতারা দলবল নিয়ে মিছিল করে এসে ফের তাঁর দোকানের ওপর চড়াও হয়ে তাঁকে ব্যাপক মারধর করে তাঁর দোকান বন্ধ করে দেয়।

অভিযোগ পশুপতি রায় বিজেপি করার অপরাধে তাঁকে এভাবে শাস্তি দিচ্ছে তৃণমূল। স্থানীয়দের অভিযোগ পটাশপুরের গোপালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের পাথরঘাটা বাজারে তৃণমূল গাজোয়ারি করে বিজেপির ওপর নানান অছিলায় হামলা চালাচ্ছে, কার দোকান ভেঙে দিচ্ছে তো কারো দোকানে তালা লাগিয়ে দিচ্ছে ,কাউকে মারধর করছে তো কারো চাষ বন্ধ করে দিচ্ছে।

আরও পড়ুন: পুজোয় ভাসবে শহর থেকে শহরতলি,বলছে হাওয়া দপ্তর

স্থানীয় এক বিজেপি কর্মী বলেন ওদের পায়ের তলার মাটি ধীরে ধীরে সরে যাওয়ার ফলেই নানান অত্যাচার করে বেঁচে থাকার চেষ্টা করছে তৃণমূল। ১লা অক্টোবরের ঘটনার পর আজ বিজেপির নেতৃত্বদের উপস্থিতিতে ওই বিজেপি কর্মী পশুপতি রায় আজ ফের আতঙ্ক কাটিয়ে দোকান খোলে। তবে তৃণমূলে হুমকি ও মারধরের ভয়ে বেশকিছুদিন দোকান বন্ধ থাকলে প্রচুর টাকার সামগ্রিক নষ্ট হয় দোকান মালিকের।

তবে শুধুমাত্র বিজেপি করার অপরাধেই তাঁকে এমন শাস্তি পেতে হোলো বলে অভিযোগ। এ বিষয়ে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি দোকানের নামে ওখানে বিভিন্ন রকম কুকর্ম ও মদ্যপান চলে বলে অভিযোগ। তাই গ্রামবাসীরা ওই দোকান বন্ধ করে। এর সাথে তৃণমূল জড়িত নয় বলে দাবি তোলে তৃণমূল নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন ::

Back to top button