জাতীয়প্রযুক্তি

বিতর্কের মুখে ফেসবুক থেকে ইস্তফা দিলেন আঁখি দাস

বিতর্কের মুখে ফেসবুক থেকে ইস্তফা দিলেন আঁখি দাস
ফাইল ছবি

বিতর্কে জড়ানোর পর পদত্য়াগ করলেন ফেসবুক ইন্ডিয়ার পাবলিক পলিসি ডিরেক্টর আঁখি দাস। আঁখি জনসেবায় কাজ করতে চান, সেকারণেই তাঁর ইস্তফা বলে সংবাদসংস্থা রয়টার্স সূত্রে খবর। উল্লেখ্য়, এ দেশে শাসকদলের প্রতি পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ উঠেছে আঁখির বিরুদ্ধে। ভারতে রাজনৈতিক বিষয়বস্তু কীভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে, এ নিয়ে কর্মীরা লাগাতার প্রশ্ন তোলেন।

ভারতে ফেসবুকের ভাইস প্রেসিডেন্ট তথা ম্য়ানেজিং ডিরেক্টর অজিত মোহন জানিয়েছেন, ”জনসেবায় কাজ করার জন্য় ফেসবুকে নিজের পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আঁখি। গত ৯ বছর ধরে সংস্থার অগ্রগতিতে আঁখি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে আমাদের লিডারশিপ টিমের সদস্য় ছিলেন। ওঁর অবদানের জন্য় আমরা কৃতজ্ঞ। আগামী দিনের জন্য় ওঁকে শুভেচ্ছা জানাই”।

আরও পড়ুন: হোয়াটসঅ্যাপে এবার ফেস আনলক সুবিধা

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন আগে, দ্য় ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়ে যে, ভারতে নিজেরে ব্য়বসা যাতে ধাক্কা না খায়, সেজন্য় শাসকদলের নেতাদের করা বিদ্বেষমূলক পোস্টের বিরুদ্ধে ব্য়বস্থা নিতে কর্মীদের বারণ করেছেন ফেসবুক ইন্ডিয়ার পদাধিকারী আঁখি দাস। এ খবর প্রকাশ্য়ে আসতেই সোচ্চার হয় কংগ্রেস। বিজেপির প্রতি পক্ষপাতমূলক আচরণের অভিযোগ তুলে ফেসবুককে দু’বার চিঠি পাঠায় কংগ্রেস।

পরে ফেসবুক ইন্ডিয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ম্য়ানেজিং ডিরেক্টর অজিত মোহন ব্লগে লেখেন, ‘ফেসবুক বরাবরই মুক্ত, স্বচ্ছ ও পক্ষপাতহীন প্ল্য়াটফর্ম যেখানে সকলে তাঁদের মত খোলা মনে প্রকাশ করতে পারেন। গত কয়েকদিন ধরে আমাদের পলিসি নিয়ে অভিযোগ করা হচ্ছে। আমরা এই পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে নিয়েছি এবং এটা স্পষ্ট করে বলতে চাই যে, আমরা ঘৃণা ও গোঁড়ামির নিন্দা করি’।

আরও পড়ুন: বড় ঘোষণা মোদী সরকারের!

 

সুত্র: The Indian Express বাংলা

আরও পড়ুন ::

Back to top button