ঝাড়গ্রাম

‘দুয়ারে সরকার’-এর শিবিরে চলুন, বাড়ি-বাড়ি গিয়ে আবেদন টিএমসিপি নেতার

স্বপ্নীল মজুমদার


‘দুয়ারে সরকার’-এর শিবিরে চলুন, বাড়ি-বাড়ি গিয়ে আবেদন টিএমসিপি নেতার


ঝাড়গ্রাম: ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি সফল করতে বাড়ি-বাড়ি গিয়ে প্রচার করছেন তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। উদ্দেশ্য আরও বেশি সংখ্যক মানুষকে শিবিরে নিয়ে গিয়ে সরকারি দশটি প্রকল্পের এক বা একাধিক পরিষেবার আওতায় নিয়ে আসা।

তৃণমূল ও যুব তৃণমূলের কর্মীদের পাশাপাশি, শাসকদলের ছাত্র সংগঠন টিএমসিপিও বসে নেই। টিএমসিপি-র জেলা সম্পাদক সৌরভ চক্রবর্তীও শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে বাড়ি-বাড়ি গিয়ে শিবিরে যাওয়ার অনুরোধ করছেন। ইংরেজির স্নাতক সৌরভ ঝাড়গ্রাম শহরের বাসিন্দা। নিজেকে মমতা-পন্থী হিসেবে দাবি করেন তিনি। নিজেকে নেতা ভাবতেও তাঁর ঘোরতর আপত্তি। শহরের ১৪ নম্বর ওয়ার্ড কিংবা ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের বাড়ি-বাড়ি গিয়ে ছাত্রনেতা বোঝাচ্ছেন, কেন ২১-এর বিধানসভা ভোটে ফের মমতা-সরকারই দরকার।

আরও পড়ুন : রাস উৎসবে খোল বাজিয়ে জঙ্গলমহলে জনসংযোগ বিধায়কের

জঙ্গলমহলের ঢা‌লাও উন্নয়ন-কাজের পরিসংখ্যান আউড়ে ছাত্রনেতা সৌরভ আগামী দিনে ভাল থাকতে গেলে এই সরকারকেই টিকিয়ে রাখার কথা এলাকাবাসীকে বোঝাচ্ছেন। স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পটি সর্বজনীন হওয়ায় ওই পরিষেবা পাওয়ার জন্য গ্রামীণ এলাকার শিবিরগুলিতে ভিড় হচ্ছে ভালই। শহরের শিবিরগুলিতেও লোকজন হচ্ছে, তবে একাংশ পুরবাসী সচেতনতার অভাবে শিবিরে এখনও যাননি। তেমনই পরিবারগুলির কাছে বেশি করে যাচ্ছেন সৌরভ।

‘দুয়ারে সরকার’-এর শিবিরে চলুন, বাড়ি-বাড়ি গিয়ে আবেদন টিএমসিপি নেতার

রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্যপ্রকল্পটির গুরুত্ব বুঝিয়ে শিবিরে যেতে এলাকাবাসীকে আগ্রহী করে তুলছেন তিনি। সৌরভ বলছেন, ‘‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৈন্যদলের আমিও এক সৈনিক। ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচিতে গিয়ে সরকারি দশটি প্রকল্পের পরিষেবা নেওয়ার জন্য বাসিন্দাদের বোঝাচ্ছি। তাঁদের শিবিরে যেতে উৎসাহিত করছি।’’



Related Articles

Back to top button