বীরভূম

দল ছাড়ার কথা ভাবিস না: অনুব্রত

গতকাল বর্ধমান পূর্বের তৃণমূল সাংসদ সুনীল মন্ডলের বাড়িতে গিয়েছিলেন কালনার বিধায়ক বিশ্বজিত্‍ কুণ্ডু। সেখানে শুভেন্দু অধিকারী এবং জিতেন্দ্র তিওয়ারির সঙ্গে বৈঠক হয় তাঁদের।

এরপরই জল্পনা ছড়ায় যে, বিশ্বজিত্‍ তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাচ্ছেন। বিষয়টি নিয়ে আজ তাঁকে ফোন করেন বীরভূম জেলার তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। তিনি ফোনে বলেন,”কিরে তোর মতো ছেলে চলে যাচ্ছে। তুই কি বিজেপিতে যাচ্ছিস”?

যদিও উত্তরে কালনার বিধায়ক তাঁকে বলেছেন, আমি এখন চুপচাপ আছি। তখন অনুব্রত তাঁকে বলেছেন, শুভেন্দুর সঙ্গে বৈঠক করে তিনি ঠিক কাজ করেননি।

এর পাশাপাশি বিশ্বজিত্‍ যাতে দল না ছাড়েন সেই কারণে তাঁকে বেশ কয়েকজন রাজ্য তৃণমূল নেতা ফোন করেছেন বলে খবর। আসলে দল যে ক্রমশ ভেঙে যাচ্ছে তা ভাল করেই বুঝতে পারছে জোড়াফুল শিবির।

আরও পড়ুন: তকবির-কাণ্ডে ছত্রধরের নেতৃত্বে নজরকাড়া মৌন মিছিল

শুভেন্দু অধিকারী দল ছাড়ছেন এটা বহুদিন আগেই পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে। জিতেন্দ্র তিওয়ারিও সেই পথে হাঁটছেন বলে মনে করা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে তালিকাটা যাতে আর বড় না হয় সেই কারণে মরিয়া হয়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব।

যদি দলত্যাগের হিড়িক বাড়ে, সেক্ষেত্রে বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল যে প্রবল অস্বস্তির মধ্যে পড়বে তা তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

এদিকে এদিন রাজ্যর শ্রমমন্ত্রী মলয় ঘটকের সঙ্গে বিশ্বজিতের ফোনে কথা হয়েছে বলে খবর। তবে বিষয়টি নিয়ে কেউ কোনো মন্তব্য করতে চাননি। বিশ্বজিত্‍ এর পাশাপাশি জল্পনা চলছে তৃণমূল সাংসদ সুনীল মন্ডলকে নিয়ে।

উল্লেখ্য তিনি তৃণমূলের ভোট ম্যানেজার প্রশান্ত কিশোরের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উজাড় করে দিয়েছেন। যে পদ্ধতিতে দল চলছে তার সমালোচনা করেছেন প্রকাশ্যে। সব মিলিয়ে তৃণমূল একেবারেই স্বস্তিতে নেই।

সুত্র: প্রথম কলকাতা

আরও পড়ুন ::

Back to top button