বর্ধমানরাজনীতি

প্রতিষ্ঠা দিবসেও তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষ বর্ধমানে

প্রতিষ্ঠা দিবসেও তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষ বর্ধমানে - West Bengal News 24

তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবসে দলীয় পতাকা তোলাকে কেন্দ্র করে দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তাল হল শহর বর্ধমান। ঘটনায় আহত হন চারজন তৃণমূল কর্মী। বর্ধমান শহরের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাজেপ্রতাপপুর এলাকায় এই সংঘর্ষ হয়। বর্ধমান থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ওয়ার্ড কমিটির সম্পাদক তথা জেলা যুব তৃণমূলের সম্পাদক নুরুল আলম গোষ্ঠী ও স্থানীয় তৃণমূল নেতা জয়ন্তকুমার পাঁজা গোষ্ঠীর মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। জয়ন্ত কুমার পাঁজার অভিযোগ, দলের প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে বাজেপ্রতাপপুরে পতাকা উত্তোলনের আয়োজন করা হয়েছিল।

অনুষ্ঠান শুরুর কিছুক্ষণ আগে নুরুল আলমের নেতৃত্বে ২০-২৫ জন দুষ্কৃতী তাঁদের উপর অতর্কিতে আক্রমণ চালায়। তাঁদের লোকেরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই লাঠি ও বাঁশ নিয়ে মারতে থাকে। এমনকী পতাকার স্ট্যান্ড, চেয়ার-টেবিল সব ফেলে দেয় তারা।

তিনি বলেন, ”এই এলাকার আমি গত পৌরসভা নির্বাচনে দলের হয়ে টিকিট পাই। কিন্তু সেই সময় এই নুরুল আলম ও তার কাকা মহম্মদ আলি তাদের দলবল নিয়ে এসে আমার বাড়ি ঘেরাও করে। এবং দলের চাপে আমি বাধ্য হয়ে আমি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াই।

সেই থেকে আমি দলের কোনও কাজ করতে গেলে সবসময় আমাকে আটকানো হয়। আজও একই ঘটনা।” যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে নুরুল আলম দাবি করেন, এই ঘটনার সঙ্গে তাঁরা কেউ জড়িত নয়। যারা অভিযোগ করছেন তারা তৃণমূলেরই কেউ নন, এরা সকলে বিজেপির মেম্বারশিপ নিয়েছেন।

আরও পড়ুন: কোনও জল্পনা নয়, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সমতুল পদ পেলেন শুভেন্দু

তাই দলকে বদনাম করতে তারা মিথ্যার আশ্রয় নিচ্ছে। এই ঘটনায় বর্ধমান থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে জয়ন্ত পাঁজা। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এ দিকে একই দিনে জয় শ্রীরাম ধ্বনি দেওয়াকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হল পূর্ব বর্ধমানের ভাতার।

শুক্রবার সকালে ভাতারের ঝুজকাডাঙ্গায় জয় শ্রীরাম ধ্বনি দেওয়াকে কেন্দ্র করে বিজেপির সঙ্গে তৃণমূলের সংঘর্ষ বাধে। আহত হয়েছেন দু’পক্ষের ১০ জন। ভাতার ৩৪ নম্বর বিজেপির মণ্ডল সভাপতি সুচিস্মিতা হাটি জানান, এ দিন সকালে তাঁদের কয়েকজন কর্মী পিকনিকের জন্য জড়ো হয়েছিলেন ।

সেই সময় আচমকা তৃণমূল কর্মীরা এসে বিজেপির দলীয় পতাকা ছিঁড়ে ফেলে। তাঁদের কর্মীরা তার প্রতিবাদ করায় এবং জয় শ্রীরাম ধ্বনি দেওয়ায় বিজেপির মহিলা কর্মীদের ওপর আক্রমণ করা হয়। হামলায় সাতজন বিজেপি কর্মী জখম হন।

অন্যদিকে বিজেপির এই অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে জানান তৃণমূল নেতৃত্ব। তৃণমূল নেতা সুব্রতকুমার সাঁতরা জানান, তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে ঝুজকাডাঙা গ্রামে তৃণমূলের দলীয় পতাকা উত্তোলন করার সময় বিজেপির কয়েকজন কর্মী জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিতে থাকে এবং দলীয় পতাকা উত্তোলনে বাধা দেন।

তাঁদের কর্মীরা প্রতিবাদ করলে তাদের মারধর করা হয়। তিনজন তৃণমূল কর্মী জখম হন। দু’পক্ষেই ভাতার থানায় একে অপরের বিরুদ্ধে নালিশ জানায়। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

 

 

সুত্র: দ্য ওয়াল

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button