জাতীয়

ইন্ডিয়ান জার্নালিস্ট এন্ড অল এডিটর অ্যাসোসিয়েশনের কমিটিতে রদবদল



একদিকে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ অন্যদিকে লকডাউন দুইয়ের প্রভাবে মানুষ নাজেহাল হয়ে পড়েছে। কিন্তু এত কিছুর মধ্যেও সাংবাদিক পরিবার ও সাধারণ মানুষের পাশে সর্বদা সজাগ ভাবে কাজ করে চলেছেন ইন্ডিয়ান জার্নালিস্ট এন্ড অল এডিটর অ্যাসোসিয়েশন।

এখানে শেষ নয় বাংলার বুকে আরও জোরদার ভাবে সাংবাদিকদের একত্রিত করতে মুর্শিদাবাদ জেলায় অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে জেলা কার্যালয় তৈরি হচ্ছে। ব্রাঞ্চ অফিস হিসেবে উদ্বোধন হবে মুর্শিদাবাদ জেলার বেলডাঙা থানা এলাকায় আগামী ১৫ ই জানুয়ারি ২০২১।

নতুন করে জেলা কার্যালয় উদ্বোধনের আগে পুনরায় নতুন ভাবে কেন্দ্র ও রাজ্য কমিটিতে রদবদল করা হলো হলো। তবে এই অ্যাসোসিয়েশনের জন্ম ইতিহাস সকলের জানা প্রয়োজন।

সৎ নির্ভীক নিষ্ঠাবান হয়ে কাজ করে চলেছে সাংবাদিক মৃত্যুঞ্জয় সরদার, আর সেই কারণেই অত্যাচারী ও সৎ নির্ভীক সাংবাদিকদের পাশে দাঁড়াতে আজ থেকে ছয় বছর আগে তিনি জন্ম দেন ইন্ডিয়ান জার্নালিস্ট এন্ড অল এডিটর অ্যাসোসিয়েশন।

সারা ভারতবর্ষে সাংবাদিক জগতের উপরে অত্যাচার, অবহেলা, অন্যায়ের বিরুদ্ধে অ্যাসোসিয়েশনের সমস্ত কর্মকর্তাকে সঙ্গে নিয়ে বারবার পথে নেমেছেন মৃত্যুঞ্জয় সরদার। সারা ভারতবর্ষে সর্বপ্রথম মৃত্যুঞ্জয় সরদার এর পক্ষ থেকেই দাবি উঠেছিল অনলাইন নিউজ পোর্টাল কে সাংবিধানিক স্বীকৃতি দিতে হবে। আজও সেই দাবি বিবেচিত স্থানে রেখেছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার। এই ছয় বছরে সংগঠনের একাধিকবার রদবদল হয়েছে, বিভিন্ন পদে দায়িত্ব বন্টন করেছেন এই সংগঠনের জাতীয় সম্পাদক মৃত্যুঞ্জয় সরদার।

একই ভাবে আজকের দিনে রাজ্য ও কেন্দ্র কমিটিতে রদবদল হল। ইন্ডিয়ান জার্নালিস্ট এন্ড অল এডিটর অ্যাসোসিয়েশনের দ্বিতীয় বারের মতন জাতীয় সভাপতির দায়িত্ব দেয়া হলো দেবাংশু চক্রবর্তীকে। ছয় বছর পরেও আবার জাতীয় সম্পাদক হিসেবে পুনরায় বহাল থাকলেন মৃত্যুঞ্জয় সরদার। পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য কমিটিতে সভাপতিত্বে পদ গ্রহণ করলেন বাশিরুল হক। প্রসেনজিৎ দোলুইকে জাতীয় সাংগঠনিক সম্পাদকের জায়গা থেকে সরিয়ে তাকে রাজ্য কমিটির সদস্য করা হয়েছে। তার জায়গায় জাতীয় সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে নন্দগোপাল ত্রিপাঠীকে। স্বপন দত্ত বাউলকে পুনরায় জাতীয় সহ-সম্পাদক পদে রাখা হয়েছে। রাজ্যের সম্পাদক ছিলেন চন্দ্র শেখর সরকার, তিনি পুনরায় সেই পদে বহাল থাকছেন।

এই কমিটিতে যেসব কর্মকর্তারা ভালো কাজ করেছেন তাদেরকে প্রমোশন দিয়ে রাজ্য স্তর থেকে কেন্দ্রীয় স্তরে নিয়ে আসা হয়েছে, তবে সংগঠনের পক্ষ থেকে জানা গেছে অ্যাসোসিয়েশনের হয়ে  যারা ভালো কাজ করেছে তাদের নির্দিষ্ট যোগ্য পদ দেওয়া হয়েছে, আর যারা দুর্নীতির সাথে জড়িয়ে পড়েছিল তাদেরকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং পরবরতীতে আরও রদবদল হতে পারে বলে জানা গেছে।

ঝাড়খণ্ডের রাজ্য কমিটির সম্পাদক চিত্রদীপ কে জাতীয় স্তরের কমিটির সদস্য পদে নিয়ে আসা হয়েছে। এ বিষয়ে অ্যাসোসিয়েশনের জাতীয় সম্পাদক মৃত্যুঞ্জয় সরদার বলেন কমিটিতে পূর্ণাঙ্গ রদবদল হয়নি, আগামী চার-পাঁচ মাস ধরে বেশকিছু রদবদল চলবে। আসাম সহ একাধিক রাজ্যে এই অ্যাসোসিয়েশনের নতুন করে কমিটি গঠন শুরু হয়েছে এবং সদস্যপদ দেওয়া হচ্ছে।



Related Articles

Back to top button