বলিউড

কারিশমার সঙ্গে প্রেম ভেঙে বিপদে পড়েছিলেন অজয় দেবগন



বলিউডের অন্যতম আলোচিত জুটি কারিশমা কাপুর ও অজয় দেবগন। ‘জিগর’, ‘সংগ্রাম’-এর মতো ব্যবসাসফল সিনেমা উপহার দিয়েছেন তারা। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়েই পরস্পরের প্রেমে পড়েন এই যুগল। কিন্তু ১৯৯৪ সালে ‘সোহাগ’ সিনেমার শুটিং সেটে তাদের মধ্যে মনোমালিন্যতা তৈরি হয়। এরপর এই সিনেমার শুটিং সেটে পরস্পরের সঙ্গে কথা বলাও বন্ধ করে দেন তারা। শট শেষ হলেই কারিশমা চলে যেতেন নিজের ঘরে।

‘সোহাগ’ সিনেমায় কারিশমা-অজয় ছাড়াও অভিনয় করেছেন অক্ষয় কুমার ও নাগমা। তবে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন অজয়-কারিশমা। এই সিনেমার সবচেয়ে জনপ্রিয় গান, ‘গরে গরে মুখেরেতে কালা কালা চশমা’। এই গানে কারিশমা-অজয়, অক্ষয়-নাগমার থাকার কথা ছিল। কিন্তু গানটিতে দেখা যায়নি অজয়কে।

কারিশমা কাপুরের জন্য এই গান থেকে বাদ পড়েছিলেন অজয়। এই গানের শুটিংয়ের আগে কারিশমা-অজয়ের বিরোধ এমন জায়গায় পৌঁছেছিল যে, অজয়ের সঙ্গে গানের শুটিং করতেও অপারগতা প্রকাশ করেছিলেন কারিশমা। তারকা সন্তান হওয়ার কারণে কারিশমাকে কিছু বলতেও পারেননি পরিচালক কুকু কোহলি। এরপর আর কখনো একসঙ্গে কাজ করেননি এই জুটি।

আরও পড়ুন : ‘ফেব্রুয়ারি’ লিখে সুখবরের ইঙ্গিত দিলেন দীপিকা

শোনা যায়, অজয়ের সঙ্গে প্রথম সম্পর্কের ইতি টেনেছিলেন কারিশমা কাপুর। এরপর বলিউডের বেশ কিছু সিনেমা অজয়ের হাতছাড়া হয়। অজয়ের কাজ চলে যাওয়ার পেছনেও কারিশমার হাত ছিল। যদিও কাজল-কারিশমার সম্পর্ক কখনো খারাপ হয়নি। তাদের মধ্যে এখনো বেশ ভালো সম্পর্ক।

১৯৯২ সালে ‘জিগর’ সিনেমায় প্রথম অভিনয় করেন কারিশমা-অজয় দেবগন। ফারুক সিদ্দিকী পরিচালিত এই সিনেমা মুক্তি পায় ১৯৯২ সালের ২৩ অক্টোবর। মুক্তির পর এটি বক্স অফিসে দারুণ ব্যবসা করে।


কারিশমা কাপুর অভিনয় থেকে অনেকটা দূরে রয়েছেন। তার অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ‘জিরো’। এটি মুক্তি পায় ২০১৮ সালের ২১ ডিসেম্বর। এতে অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। কারিশমা নাম লিখিয়েছেন ওয়েব সিরিজেও। তার অভিনীত প্রথম ও সর্বশেষ ওয়েব সিরিজ হলো ‘মেন্টালহুড’। গত বছরের ১১ মার্চ মুক্তি পায় এটি।

অভিনয় থেকে কারিশমা দূরে সরে গেলেও নিয়মিত কাজ করছেন অজয়। পাশাপাশি সিনেমা প্রযোজনাও করছেন তিনি। বর্তমানে অজয়ের হাতে রয়েছে বেশ কিছু সিনেমার কাজ। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো—‘দ্য প্রাইড অব ইন্ডিয়া’, ‘ট্রিপল আর’, ‘গাঙ্গুবাই কাঠিয়াওয়াড়ি’, ‘থ্যাঙ্ক গড’, ‘মে ডে’ প্রভৃতি।


Related Articles

Back to top button