আন্তর্জাতিক

গাঁজা বিক্রি করে টাইসনের মাসে আয় সোয়া ৪ কোটি টাকা


গাঁজা বিক্রি করে টাইসনের মাসে আয় সোয়া ৪ কোটি টাকা - West Bengal News 24


মাইক টাইসন, এক সময়কার বিখ্যাত বক্সার। পেশাদার ক্যারিয়ারে মোট ৫৮টি ফাইটে লড়ে এর ৫০টিতেই জিতেছিলেন তিনি। হেরেছেন ৬টিতে। ক্যারিয়ারে আয় ছিল ৪ হাজার ৯৫০ কোটি টাকার বেশি (৫৮৪ মিলিয়ন ডলার)। কিন্তু এক সময় মুখ থুবড়ে পড়েন। ধর্ষণ, মাদকসহ নানা অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে।

একটা সময় তাকে ‘আয়রন মাইক’ বা ‘কিড ডায়নামাইট’ নামে ডাকা হতো। কিন্তু সর্বস্ব হারিয়ে যখন দেউলিয়া হয়ে পড়েন তাকে ‘দ্য ব্যাডেস্ট ম্যান অন দ্য প্ল্যানেট’ ডাকা হতো।

ভাবতে পারেন, যে বক্সার একটা সময় টাকার বিছানায় ঘুমাতেন, তিনি রাস্তায় নেমে পড়বেন। চলন ছিল, টাইসন একবেলা খেতে মেঝেও পরিষ্কার করেছিলেন। সেই অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক বিখ্যাত এই বক্সার। এখন বিক্রি করেন গাঁজা। মাসে তার আয় সোয়া ৪ কোটি টাকার বেশি।

নিজের একটি গাঁজার ফার্ম গড়ে তুলেছেন মাইক টাইসন। নাম দিয়েছেন ‘টাইসন র‍্যাঞ্চ।’ আইনের আওতায় থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যে গাঁজার ফার্ম খুলেছেন তিনি। রয়েছে হাজার হাজার গাঁজার গাছ।

আরও পড়ুন : বাইডেনের নির্দেশে সিরিয়ায় বিমান হামলা, নিহত ১৭

স্প্যানিশ দৈনিক মার্কা জানিয়েছে, ৫৪ বছর বয়সী টাইসন নিজেকে হারিয়ে খুঁজছিলেন। একটা সময় ভাবলে গাঁজা প্রেমিদের জন্য নিজ উদ্যোগে কিছু কর্রা। কারণ, নিজের গাঁজা সেবক করেন টাইসন। এরপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। টাইসন র‍্যাঞ্চ ফার্মটি প্রতিষ্ঠা করেছেন ১৬ হেক্টর জমির ওপর।


ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যে আগে গাঁজার ব্যবহার নিষিদ্ধ থাকলেও ২০১৬ সালের নভেম্বরে ২১ বছরের বেশি বয়সীদের জন্য সেটিকে বৈধতা দেওয়া হয়। যে কারণেই, সুযোগ বুঝে কাজে নেমে পড়েছিলেন তিনি।

মার্কা আরও জানিয়েছে, প্রতি মাসে গাঁজার ব্যবসায় থেকে পাঁচ লাখ ডলার আয় করেন টাইসন। নিজের ফার্মের গাঁজা নিজেও সেবন করেন তিনি।

গাঁজা সেবনের ব্যাপারটি নিয়ে টাইসন এক সাংবাদিককে জানিয়েছিলেন, প্রতি মাসে তিনি ও তার অতিথিরা মিলে প্রায় ৪০ হাজার ডলারের গাঁজা সেবন করেন। বাংলাদেশি মুদ্রায় অঙ্কটা দাঁড়ায় প্রায় ৩৪ লাখ টাকা! টাইসনের বন্ধু ও সাবেক এনএফএল খেলোয়াড় এবেন ব্রিটন তো স্বীকার করেই নিয়েছেন, তারা মাসে ১০ টন গাঁজা সেবন করেন।


Related Articles

Back to top button