আন্তর্জাতিক

প্রিন্স ফিলিপের সম্মানে যুক্তরাজ্যজুড়ে ‘গানস্যালুট’

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপকে শেষ বিদায় দিতে সম্মানজনক গ্যানস্যালুটের আয়োজন করেছে যুক্তরাজ্য।

গতকাল শুক্রবার উইন্ডসর ক্যাসেলে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। বয়স হয়েছিল ৯৯ বছর। ব্রিটিশ ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি দিন ধরে রয়্যাল কনসোর্ট ছিলেন তিনি।

বার্তা সংস্থা এএফপি ও ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, দেশজুড়ে গানস্যালুটের মাধ্যমে প্রিন্স ফিলিপের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হবে। স্পেনের দক্ষিণ উপকূলে যুক্তরাজ্যের অধীনে থাকা জিব্রলটার এবং সমুদ্রে থাকা যুদ্ধজাহাজগুলো থেকেও একইভাবে সম্মান জানানো হবে তাকে। ইতিমধ্যে সরকারি সব ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়েছে এবং তার শেষকৃত্যের পরের দিন সকাল পর্যন্ত সেটি অর্ধনমিত থাকবে।

ব্রিটিশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, আজ শনিবার স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় লন্ডন, এডিনবরা, কার্ডিফ, বেলফাস্টসহ অন্যান্য ব্রিটিশ শহরে প্রতি মিনিটে একটি করে মোট ৪১টি গুলি ছোড়া হবে। সাগরে এইচএমএস ডায়ামন্ড ও এইচএমএস মনট্রোজসহ রয়্যাল নেভি

আরও পড়ুন : যুক্তরাষ্ট্রে আগস্টের মধ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৬ লক্ষাধিক ছাড়াবে

অনলাইন ও টিভি চ্যানেলে এ গানস্যালুট সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

এর আগে ১৯০১ সালে ব্রিটিশ রানি ভিক্টোরিয়া ও ১৯৬৫ সালে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইন্সটন চার্চিলের মৃত্যুতে এ ধরনের গানস্যালুট দেওয়া হয়েছিল।

রয়্যাল কলেজ অব আর্মস সূত্রে জানা গেছে, উইন্ডসরের সেন্ট জর্জ চ্যাপেলে তাকে সমাহিত করা হবে। তবে কোন দিন তাকে সমাহিত করা হবে, সেটি এখনো জানানো হয়নি।

১৯৫২ সালে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ ব্রিটিশ সিংহাসনে আরোহণের পর ২০১৭ সাল পর্যন্ত নৌবাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা প্রিন্স ফিলিপ ২২ হাজার ২১৯টি একক সরকারি কর্মসূচিতে অংশ নেন। রয়্যাল মেরিনসহ ৭৮০টির বেশি প্রতিষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক, প্রেসিডেন্ট অথবা সদস্য প্রিন্স ফিলিপ ৬৩৭ বার বিদেশ সফর করেছেন এবং প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার বক্তব্য দিয়েছেন।

আরও পড়ুন ::

Back to top button