বলিউড

উস্কানি মুলক মন্তব্যের জের, কঙ্গনার টুইটার হ্যান্ডেল সাসপেন্ড


বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসা এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কুরুচিকর আক্রমণ করায় অভিনেত্রী কঙ্গনার রানাউতের টুইটার হ্যান্ডেল বন্ধ করা হল। একাধিক উস্কানিমূলক টুইট করা হয় রবিবার ফল ঘোষণার পর থেকে। শেষ টুইটে রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসার অভিযোগ তুলে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে নিজের গুজরাত দাঙ্গার রূপ দেখানোর বার্তা দেন কঙ্গনা। তার জেরেই তাঁর অ্যাকাউন্ট বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় টুইটার।

এর আগেও কঙ্গনার টুইটার হ্যান্ডেল সাসপেন্ড করা হয়েছিল। ওয়েব সিরিজ তাণ্ডব নিয়ে প্ররোচনামূলক টুইট করায় কয়েক ঘণ্টার জন্য বন্ধ করা হয়েছিল তাঁর হ্যান্ডেল। কঙ্গনার দিদি তথা তাঁর ম্যানেজার রঙ্গোলি চান্দেলের টুইটার অ্যাকাউন্টও সোশ্যাল মিডিয়ার নিয়ম লঙ্ঘন করার জন্য বন্ধ করা হয়েছিল।
প্রসঙ্গত, একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির বিরুদ্ধে তৃণমূলের বিপুল জয়ের পর বলিউডের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’-এর মন্তব্য, ‘বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গারা মমতার সবথেকে বড় শক্তি।’ এখানেই অবশ্য থেমে থাকেননি তিনি। তৃণমূল সুপ্রিমোকে ‘ভিলেন’ আখ্যা দিয়ে রাহুল গান্ধীর সঙ্গেও তুলনা টেনেছেন।

পদ্ম শিবিরকে সমর্থন জানাতে গিয়ে বাংলার মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরির চেষ্টা করছেন বলিউড অভিনেত্রী, এমন অভিযোগ তুলেই কলকাতা পুলিশে FIR দায়ের হয়েছে কঙ্গনা রানাউতের বিরুদ্ধে। হাইকোর্টের আইনজীবী সুমিত চৌধুরী ই-মেল মারফত ‘ক্যুইন’ কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন সোমবার। এবার তাঁর টুইটার হ্যান্ডেলও বন্ধ করা হল। অনেক সেলেবই কঙ্গনার টুইটার হ্যান্ডেল সাসপেন্ড হওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন।

সুত্র : দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

আরও পড়ুন ::

Back to top button