জাতীয়

শ্মশানের গেটে ঝুলছে ‘হাউসফুল’নোটিশ


মহামারি করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত দেশ। প্রতিদিনই বাড়ছে শনাক্ত ও মৃত্যু। দেশবাসী এখনো জানে না এর শেষ কোথায়। এমতাবস্থায় হাসপাতালের মর্গ ও শ্মশানগুলোতে মৃতদেহের সারি। শেষকৃত্যের জন্যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে স্বজনদের।

এতো বেশি শ্মশানে মরদেহ পোড়ানো হয়েছে আর কোনো জায়গা না থাকায় গেটে ‘হাউসফুল’সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দিয়েছে শ্মশান কর্তৃপক্ষ। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কর্ণাটকের চামরাজপেটের শ্মশানে।

সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, করোনায় আক্রান্ত হয়ে বহু মানুষের মৃত্যু ঘটছে। অনেকের আবার স্বাভাবিক মৃত্যুও হচ্ছে। এজন্য শ্মশানগুলোতে চাপ বেড়েছে। ইতোমধ্যেই বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরালও হয়েছে এই ছবি।

অপরদিকে কর্ণাটকের রাজধানী বেঙ্গালোরের ১৩টি ইলেকট্রিক চুল্লির বাইরেও ঝুলছে হাউসফুল নোটিশ। করোনায় প্রতিদিন বহু সংখ্যক মানুষের মৃত্যুর কারণেই সৃষ্টি হয়েছে এই পরিস্থিতির।

সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, কর্ণাটকের চামরাজপেটের শ্মশানে প্রতিদিন ২০টি মৃতদেহ ঢুকিয়ে নিয়ে গেটে ‘হাউস ফুল’সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। করোনায় মৃতদের সৎকারের জন্য বেঙ্গালোর মহানগর পালিকে-কে (বিবিএমপি) শহরের পাশেই ২৩০ একর জমি দিয়েছে সরকার। মূলত করোনা মৃতদের সৎকারের কাজই হচ্ছে এই জায়গায়। তারপরেও শহরের শ্মশানে লাইনের সৃষ্টি হচ্ছে, যা প্রশাসনের উদ্বেগ বাড়াচ্ছে।

দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ২ লাখ ৮২ হাজার ৮৩৩ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ৬৬ লাখ ১৩ হাজার ২৯২। মোট মৃতের সংখ্যা ২ লাখ ২২ হাজার ৪০৮ জন। এই মুহূর্তে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪ লাখ ৪৭ হাজার ১৩৩।

আরও পড়ুন ::

Back to top button