রাজ্য

নন্দীগ্রামে পুনর্গণনার আবেদন খারিজ, তৃণমূল চাইলে হাইকোর্টে যেতেই পারে : র্নিবাচন কমিশন


নন্দীগ্রামে পুনর্গণনার আবেদন খারিজ, তৃণমূল চাইলে হাইকোর্টে যেতেই পারে : র্নিবাচন কমিশন - West Bengal News 24

নন্দীগ্রামে ভোট গণনার প্রক্রিয়া নিয়ে সোমবারও প্রশ্ন তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে জানিয়েছেন, তৃণমূল পুনর্গণনার দাবি জানিয়েছে কমিশনে।

কিন্তু মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দিল, নন্দীগ্রামে পুনর্গণনার আবেদন রিটার্নিং অফিসার গণনার দিনই মৌখিক নির্দেশে খারিজ করেছে। এখন একমাত্র সেই নির্দেশের চ্যালেঞ্জ করে কোনও প্রার্থী বা তাঁর এজেন্ট হাইকোর্টে ইলেকশন পিটিশন দাখিল করতে পারে।

কমিশনের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নন্দীগ্রামে প্রতিটি রাউন্ডের গণনা খুবই স্বচ্ছতার সঙ্গে হয়েছে। পৃথক কম্পিউটারে এক্সেল শিটে তা লেখা হয়েছে। প্রতিটি রাউন্ডে গণনার ফলাফলে প্রার্থীদের কাউন্টিং এজেন্টরা সই করেছেন। তা গণনা কেন্দ্রে ডিসপ্লে বোর্ডে বড় করে দেখানো হয়েছে। কিন্তু তখন কেউই আপত্তি তোলেননি। তা ছাড়া জেনারেল অবজার্ভার বা মাইক্রো অবজার্ভারদের রিপোর্টে কোনও অনিয়মের কথা বলা হয়নি।

কমিশন আরও জানিয়েছেন, এক জন প্রার্থীর (পড়ুন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) এজেন্ট পুনর্গণনার আর্জি জানিয়েছিলেন। কিন্তু তা রিটার্নিং অফিসার মৌখিক নির্দেশে খারিজ করে দেন। কোনও কেন্দ্রে নির্বাচনে মনোনয়ন জমা থেকে শুরু করে গণনা পর্যন্ত রিটার্নিং অফিসারের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। এ ব্যাপারে তাঁর কাজের স্বাধীনতা রয়েছে।

সোমবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি টেক্সট মেসেজ পড়ে দাবি করেছিলেন যে রিটার্নিং অফিসারকে হুমকি দেওয়া হয়েছে। কমিশন এদিন জানিয়েছে, সংবাদমাধ্যমে এই রিপোর্ট দেখে মুখ্য সচিবকে এ ব্যাপারে জানানো হয়েছে। রিটার্নিং অফিসারকে যথাযথ নিরাপত্তা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

কমিশন জানিয়েছে, রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিককে জানানো হয়েছে নন্দীগ্রামের রিটার্নিং অফিসারের রিপোর্ট, ইভিএম, ভিভিপ্যাট, ভিডিও রেকর্ডিং, কাউন্টিং রেকর্ড যেন নিয়ম মতো সংরক্ষণ করে রাখেন। এজন্য যদি কোনও অতিরিক্ত নিরাপত্তার প্রয়োজন হয়, সে ক্ষেত্রে রাজ্য সরকারের সঙ্গে তিনি যেন সমন্বয় করে চলেন।

সূত্র : দ্য ওয়াল

আরও পড়ুন ::

Back to top button