রাজ্য

করোনা বিধি লঙ্ঘন জেরে কাঠগড়ায় বাবুল সুপ্রিয়! দায়ের হল এফআইআর

করোনা বিধি লঙ্ঘন জেরে কাঠগড়ায় বাবুল সুপ্রিয়! দায়ের হল এফআইআর - West Bengal News 24

বিপাকে পড়লেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী তথা আসানসোলের বিজেপি সাংসদ ও গায়ক বাবুল সুপ্রিয়। কোভিড বিধি লঙ্ঘন করে ভোট প্রচার করার জেরে তাঁর বিরুদ্ধে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। শুধু তাই নয় আগামী ৩ দিনের মধ্যে তাঁকে থানায় হাজিরা দিতেও বলা হয়েছে। রবিবার রাতে বাবুল নিজেই সোশ্যাল মিডিয়াতে এই ঘটনা তুলে ধরেন।

গোটা ঘটনাটিকে তিনি ‘মমতা দিদির’ পুলিশের পদক্ষেপ তথা শাসক দলের প্রতিহিংসা বলেই দেখাতে চেয়েছেন। সেই সঙ্গে এটাও বোঝাতে চেয়েছেন যে তাঁর মতো কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর এহেন হাল হলে বিজেপির সাধারন কর্মী ও সমর্থকদের এখন কী দশা চলছে। পুলিশ ও প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই হাড়োয়াতে রোড শো করে স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করেছেন বলে বাবুলের বিরুদ্ধে হাড়োয়া থানায় ভিযোগ দায়ের হয়েছে গত ১৪ এপ্রিল। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে গতকাল হাড়োয়া থানা থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে বাবুলকে।

হাড়োয়া থানা সাব ইন্সপেক্টর দেবেন মণ্ডল তাঁকে এই চিঠি পাঠিয়ে আগামী ৩ দিনের মধ্যে থানায় হাজিরা দিতে বলেছেন। এমনকি তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলেও সেই চিঠিতে জানানো হয়েছে। তাই তদন্তের স্বার্থে বাবুল যেন থানায় আসেন। হাড়োয়া থানার তরফে সেই চিঠি পাওয়ার পরই বাবুল ফেসবুকে পোস্ট করে লেখেন, ‘আমার বিরুদ্ধে মমতা দিদির পুলিশের এফআইআর। সেখানে আমাদের বিজেপি প্রার্থীদের জন্য প্রচারাভিযান করতে হাড়োয়া গিয়েছিলাম! মন্তব্য নিষ্প্রয়োজন..কোনও মন্তব্য নয়.আমার আইনজীবীরা প্রয়োজনীয় আইনানুগভাবে কাজ করবে।’

বাবুল কার্যত বুঝিয়ে দিতে চেয়েছেন যে রাজ্য সরকারের পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক আচরণ করছে। বাবুল মনে করছেন, তাঁকে ঘিরে কোনও রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র চলছে। এই এফআইআর সেই ষড়যন্ত্রেরই অংশ। প্রসঙ্গত, শেষ দফা ভোটের আগের দিন দ্বিতীয় বার করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। কলকাতার এন্টালিতে তাঁর এক সভায় করোনা বিধি শিকেয় উঠেছিল। যদিও তাঁর করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবরের পরই রাজনৈতিক সভায় করোনা-বিধি কতটা পালন হচ্ছে, তা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। এন্টালিতে বাবুলের সভাতেও করোনা-বিধি তেমনভাবে চোখে পড়েনি। মানা হয়নি সামাজিক দূরত্বের বিধি।

মাস্কও ছিল না অনেকের মুখ। তা নিয়ে অবশ্য সাফাই দিয়েছিলেন বাবুল। দাবি করেছিলেন যে তিনি ‘বোকা’ নন। তাই আগেভাগেই সামাজিক দূরত্বের বিধির বিষয়ে জানানো হয়েছিল। এখন পুলিশের নির্দেশ মেনে ৩ দিনের মধ্যে তিনি থানায় হাজিরা দেন কিনা, সেটাই দেখার।

সূত্র :এই মুহুর্তে

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button