জাতীয়

ডিজেল ৮৫ পার, পেট্রলেরও রেকর্ড, নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর মূল্যবৃদ্ধির আশঙ্কা

ভোটের পর থেকে দফায় দফায় বেড়েই চলেছে জ্বালানির দাম। এবারের বৃদ্ধির ফলে পেট্রোলের দাম রেকর্ড গড়ল। এবছরে সর্বোচ্চ দামে পৌঁছল পেট্রোল। কলকাতায় লিটার প্রতি ২৬ পয়সা বেড়ে পেট্রোলের দাম হল ৯১ টাকা ৯২ পয়সা। ৩০ পয়সা বেড়ে লিটারপ্রতি ডিজেলের দাম হল ৮৫ টাকা ২০ পয়সা।

গতকালই পেট্রোল ও ডিজেলের দাম একদফা বেড়েছিল। করোনা পরিস্থিতির জেরে একে আর্থিক বিপর্যয়ের মখে দেশ। বহু মানুষ কাজ হারিয়েছেন। তার ওপর পেট্রোল ও ডিজেলের এইভাবে দাম বেড়ে চলায় নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর দাম বাড়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। যার ফলে মানুষের ওপর আর্থিক বোঝা আরও বাড়ার সম্ভাবনা।

রাষ্ট্রায়ত্ত তেল সংস্থাগুলির মূল্য সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি অনুসারে, রাজধানী দিল্লিতে পেট্রোলের দাম ২৭ পয়সা বেড়ে প্রতি লিটারে হয়েছে ৯১.৮০ টাকা। অন্যদিকে,ডিজেলের দাম লিটারে ২০ পয়সা বেড়ে হয়েছে ৮২.৩৬ টাকা।

মুম্বইতে পেট্রোলের দাম প্রতি লিটারে ৯৮.১২ টাকা। ডিজেলের দাম প্রতি লিটারে ৮৯.৪৮ টাকা।

উল্লেখ্য, পাঁচ রাজ্যের ভোটের ফল ঘোষণার পর গত সপ্তাহের মঙ্গলবার থেকে প্রায় প্রতিদিনই দাম বাড়ছে পেট্রোল ও ডিজেলের। মাঝে তিনদিনের বিরতির পর গতকালও দাম বেড়েছিল।

পশ্চিমবঙ্গ, অসম, কেরল, তামিলনাড়ু এই চার রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত পুদুচেরির ভোটের বিজ্ঞপ্তি নির্বাচন কমিশন ২৬ ফেব্রুয়ারি জারি করেছিল। এর একদিন পর ২৭ ফেব্রুয়ারি পেট্রোল ও ডিজেলের দাম বেড়েছিল। এরপর দুই মাসের বিরতির পর ফের বাড়তে শুরু করেছে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম।

উল্লেখ্য, স্থানীয় কর ও পরিবহন খরচ অনুসারে দেশের বিভিন্ন স্থানে পেট্রোল ও ডিজেলের দামে ফারাক হয়ে থাকে। গত ১৫ এপ্রিল তেল কোম্পানিগুলি পেট্রোল ও ডিজেলের দাম সামান্য কমিয়েছিল। এরপর আর মূল্য সংশোধন করা হয়নি। ওই সময় পাঁচ রাজ্যে নির্বাচন চলছিল। ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার পর তেল কোম্পানিগুলি পেট্রোল ও ডিজেলের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছিল। কারণ, ওই সময় আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম দ্রুত বাড়ছিল। আমেরিকায় চাহিদার কারণে অপরিশোধিত তেলের দামে এই বৃদ্ধি।

সূত্র: এ বি পি আনন্দ

আরও পড়ুন ::

Back to top button