বলিউড

বিশ্বের সেরা ১০০ হট পুরুষের নমিনেশনে ট্রেন্ডে সুশান্ত, আনন্দে উচ্ছ্বসিত অনুরাগীরা

কখনও তিনি ‘কাই পো চে’ – এর ঈশান ভট্ট, আবার কখনও তিনি ‘সুদ দেশী রোমান্সের’ রঘু রাম, আবার কখনও তিনি ‘ডিটেকটিভ ব্যোমকেশের চরিত্রে’, আবার কখনও ‘পিকে’ ছবিতে অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মার বয়ফ্রেন্ডের চরিত্রে, কখনও বিখ্যাত ক্রিকেটার ‘মহেন্দ্র সিংহ ধোনি’ – র চরিত্রে, আবার ‘কেদারনাথ’ এ একজন ভোলোনাথের শিষ্য, আবার কখনও ‘ছিছোঁড়ে’ ছবিতে সফল পিতার চরিত্রে।

এই সকল চরিত্রের অধিকারী নিশ্চয়ই কে বুঝতে পারছেন। কিন্তু ইন্ডাস্ট্রিতে পৌঁছে বেশিদিন তিন তাঁর অভিনয়ের যাদু দেখাতে পারলেন না। মাত্র ৩৪ বয়সেই অকালে মৃত্যুর পথ বেছে নিতে হল তাঁকে, দেখতে দেখতে ১ বছর হতে চলল জনপ্রিয় অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের আকস্মিক মৃত্যু। যার মৃত্যুতে থমকে গিয়েছিল গোটা দেশ।

মাত্র অল্প কয়েকদিনের অভিনয় জীবনে তিনি জায়গা করে নিয়েছিলেন তাঁর অনুরাগীদের মনে। সঙ্গে তাঁর মধ্যে ছিল নিজেকে সাফল্যের পথে প্রতিষ্ঠা করার উদ্যম প্রচেষ্টা। কিন্তু সেই যাত্রা আর সম্পূর্ন হল কই। হঠাৎই মাঝপথে থেমে গেল সব, সবকিছু থমকে দিয়ে আকাশের তারা হয়ে গেলেন তিনি। তাঁর আকস্মিক মৃত্যুতে শুধু বলিউড নয়, থমকে গিয়েছিল গোটা ভারত। প্রভাব পড়েছিল যুব সমাজের।

কিন্তু কি ছিল তাঁর মৃত্যু রহস্য, কেন তাঁকে অকালে চলে যেতে হল এত উজ্জ্বল ভবিষ্যতকে ছেড়ে! ‘কাই পো চে’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে সুশান্তের অভিষেক হয়। অভিনয়ের শুরুতেই ছোট্ট শহরের অভিনেতা বলে তাঁকে অনেকেই পছন্দ করেননি। পরে অবশ্য সবকথা ফাঁস হয়।

তবে তার মৃত্যু কে ঘিরে চলেছে অনেক জল্পনা যা আজও চলছে? কিন্তু আজও সেই রহস্যভেদ হয়নি। কেন অভিনেতার বন্ধ করে নিজেকে শেষ করে ফেললেন। আদৌ কি সেটা খুন না আত্মহত্যা জানা নেই। চলছে এখনও সিবিআই তদন্ত। তবে হয়তো ভক্তদের হৃদয়ে থাকে যাবেন তিনি সারাজীবন, যদিও কথায় আছে শিল্পীদের কোনোদিন মরণ হয়না, তারা তাদের শিল্পের মাধ্যমে বেঁচে থাকেন। ১৪ জুন ২০২০ সালে মৃত্যু হয়েছিল সুশান্তের।

কিন্তু সুশান্ত সেই পৃথিবীর চোখে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে পরিচিত হলেন, কিন্তু তাঁর প্রয়াত হওয়ার পর। কিছুদিন আগে মরণোত্তর দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারে সম্মানিত করা হয়েছিল সুশান্তকে। গত বছর মৃত্যুর পর তাঁর মুক্তিপ্রাপ্ত সর্বশেষ ফিল্ম ‘দিল বেচারা’ ডিজনি হটস্টারের সমস্ত রেকর্ড ব্রেক করে দিয়েছিল।

এবার আবারো সুশান্ত আরেকটি সম্মানে ভূষিত হলেন। ২০২১ সালের বিশ্বের শ্রেষ্ঠ একশো হ্যান্ডসাম পুরুষের নমিনেশনে জায়গা করে নিলেন সুশান্ত। গতকাল অর্থাৎ ১২ মে সকাল থেকেই নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হচ্ছিল সুশান্ত সিং রাজপুতের একের পর এক স্টাইলিশ ছবি।

প্রথমে ব্যাপারটি নজরে এলেও পরে একটু গভীরে যাওয়ার পর জানা যায়, বিশ্বের সেরা হ্যান্ডসাম ম্যানের নমিনেশনে অনেকের থেকেই এগিয়ে রয়েছেন সুশান্ত। তবে সুশান্ত-ট্রেন্ডের এখনও অবধি ভাইরাল হওয়া পোস্টগুলির মধ্যে গতকালের পোস্টটি ছিল অন্যতম। মৃত্যুর পরেও সুশান্তই একমাত্র অভিনেতা যাকে ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়া এখনও উত্তাল, যাঁর ট্রেন্ড সোশ্যাল মিডিয়ায় এখনও প্রবল।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by ❤SushantxCastle💫 (@sushantthecutest)

গত বছর ১৪ ই জুন লকডাউনের সময় মুম্বইয়ের বান্দ্রায় নিজের বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে সুশান্তের মৃতদেহ পাওয়া যায়। তাঁর মৃতদেহ কুপার হাসপাতালে পোস্টমর্টেম করা হলে মৃত্যুর কারণ হিসাবে ‘আত্মহত্যা’ বলা হয়। কিন্তু সুশান্তের অনুরাগীরা, বন্ধু ও তাঁর পরিবারবর্গ সুশান্তের মৃত্যুর সিবিআই তদন্ত চেয়েছিলেন।

সেই তদন্তেই উঠে আসে বলিউডের একাধিক প্রযোজক ও পরিচালকের বিরুদ্ধে নেপোটিজমের কান্ড কারখানা। যার মধ্যে অন্যতম করণ জোহর (karan johar)। রুখে দাঁড়িয়ে ছিলেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতও। এছাড়া সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর ওপরও সুশান্ত মৃত্যুর আরোপ লাগানো হয়, যার জন্যে তাঁকে কয়েকদিন জেলহাজতেও থাকতে হয়েছিল তবে এখন সে জামিনে ছাড়াপ্রাপ্ত। এছাড়া সুশান্ত মৃত্যুর পর বলিউডের কেচ্ছা প্রকাশ্যে এসেছিল, সবার আড়ালে বলিউডে চলত ড্রাগের রেকেট।

আরও পড়ুন ::

Back to top button