রাজ্য

গ্রেফতারির তালিকায় শুভেন্দু নেই কেন? প্রশ্ন নারদ কর্তা ম্যাথুর

সোমবার সাত সকালেই হূলস্থূলকাণ্ড। নারদ মামলায় (NaradScam) গ্রেফতার ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র, শোভন চট্টোপাধ্যায়। তবে এই পর্বে সিবিআইয়ের (CBI) তরফে মুকুল রায় (Mukul Roy), শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikary) বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি। যা নিয়ে এবার প্রশ্ন তুললেন খোদ নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েল (mathew samuel)। তাঁর কথায় ,”শুভেন্দু অধিকারীকে গ্রেফতার করলো না সিবিআই। কেন এই মামলায় অন্যান্য অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের সত্ত্বেও গ্রেফতার করেছে না সিবিআই।”

নারদকাণ্ডে সোমবার সকালে কলকাতার চেতলার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে। আদালতে আইনি পথে সিবিআইয়ের মোকাবিলা করবেন বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ (Firhad Hakim) । উল্টোদিকে এই একই মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শোভন চট্টোপাধ্যায় ও মদন মিত্রকে। এদের বিরুদ্ধে ব্যাঙ্কশাল আদালতে চার্জশিট (Chargesheet) জমা দেবে সিবিআই।

তবে নারদকাণ্ডে সিবিআইয়ের এই তত্‍পরতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। একই মামলায় নাম রয়েছে বিজেপি নেতা মুকুল রায় ও শুভেন্দু অধিকারীরও। তাঁদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নয়? প্রশ্ন তুলেছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল। নারদ মামলায় নাম রয়েছে আইপিএস অফিসার এসএমএইচ মির্জারও। নাম রয়েছে বিজেপির যুব নেতা শঙ্কুদেব পণ্ডারও। সিবিআই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে এই তত্‍পরতা নিয়েছে বলে অভিযোগ রাজ্যের শাসকদলের।

নারদ মামলায় শুভেন্দু অধিকারী, মুকুল রায়দের গ্রেফতার না করা নিয়ে এবার প্রশ্ন তুলেছেন খোদ নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলও। তিনি বলেন, ”শুভেন্দু অধিকারীকে গ্রেফতার করলো না সিবিআই। কেন এই মামলায় অন্যান্য অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের সত্ত্বেও গ্রেফতার করেছে না সিবিআই।” জানা গিয়েছে, এদিন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের (Jagdeep Dhankhar) অনুমতি নিয়ে প্রথমে ফিরহাদ হাকিমকে গ্রেফতার করে সিবিআই।

এমনকী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র, শোভন চট্টোপাধ্যায়দের গ্রেফতার করা নিয়েও রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সম্মতি নিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তারপরেই চারজনকে নিয়ে যাওয়া হয় নিজাম প্যালেসে। সেখানে চারজনকেই অ্যারেস্ট মেমোতে সই করানো হয়েছে। ইতিমধ্যেই নারদ মামলায় সিবিআইয়ের আধিকারিক এবং আইনজীবীরা পৌঁছে গিয়েছেন ব্যাঙ্কশাল আদালতে।

সূত্র :কলকাতা ২৪*৭

আরও পড়ুন ::

Back to top button