রাজ্য

আইনশৃঙ্খলা এবং লকডাউন বিধি পালনের আর্জি, ট্যুইট অভিষেকের

আইনশৃঙ্খলা এবং লকডাউন বিধি পালনের আর্জি, ট্যুইট অভিষেকের - West Bengal News 24

রাজ্যজুড়ে করোনার জেরে কার্যত লকডাউনের মধ্যেই নারকাণ্ডে (Narada Scam Update) রাজ্যের মন্ত্রী-বিধায়কদের গ্রেফতারি। তার পরই নিজাম প্যালেসের সামনে বিক্ষোভ শুরু করেন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা। বেলা গড়াতেই রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় নিজাম প্যালেসের সামনের রাস্তা।

বিক্ষোভের মধ্যেই ধস্তাধস্তি শুরু হয় কেন্দ্রীয় বাহিনী ও তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে। চলে ইট-বৃষ্টি, লাঠি ছোড়াছুড়ি। এই পরিস্থিতিতে ট্যুইট করে দলের কর্মী-সমর্থকদের বার্তা দিলেন তৃণমূলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)।

ট্যুইটে অভিষেক লিখেছেন, ‘আমি সকলের কাছে অনুরোধ করছি, লকডাউনের নিয়ম ভেঙে কোনও কাজ করবেন না। এতে গোটা বাংলার মানুষের ক্ষতি। আমাদের আইনের উপর আস্থা রয়েছে। আইনি পথেই আমরা লড়ব’।

ট্যুইটে নিজের বক্তব্যের মাধ্যমে পথে নেমে আন্দোলনের পরিবর্তে আইনি পথে লড়ার ডাক দিয়েছেন অভিষেক। এবং তারই সঙ্গে বুঝিয়ে দিয়েছেন, তৃণমূলের নেতা-মন্ত্রীদের গ্রেফতারির ঘটনায় কোন পথে এগোতে চাইছে দল।

আচমকাই সোমবার নারদ মামলায় নয়া মোড়। সকাল সকাল বাড়িতে গিয়ে গ্রেফতার করা হয় রাজ্যের মন্ত্রী তথা প্রাক্তন মেয়র ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে। সেই সঙ্গে গ্রেফতার করা হয়েছে কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্রকে। একই সঙ্গে গ্রেফতার শোভন চট্টোপাধ্যায়ও।

সিবিআই সূত্রে খবর, এদিন সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ নিজাম প্যালেসে অ্যারেস্ট মেমোয় সই করানো হয় এই চারজনকে। এর পরই নিজাম প্যালেসে যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঘটনার জেরে রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছে তৃণমূল।

অন্যদিকে, রাজ্যের দুই মন্ত্রী, এক বিধায়ক এবং প্রাক্তন িবধায়ককে গ্রেফতারের পর যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তাতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উপর নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

সাংবিধানিক রীতি মেনে চলা এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করার জন্যও মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি আর্জি জানিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে তাঁর স্পষ্ট হুঁশিয়ারি, আইনের শাসন এবং সাংবিধানিক ব্যবস্থা এ ভাবে ভেঙে পড়লে তার ফলাফলও যেন ভেবে দেখেন মুূখ্যমন্ত্রী।

সূত্র : নিউজ ১৮

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button