রাজ্য

আপাতত জেল হেফাজতেই থাকবেন চার হেভিওয়েট, আগামিকাল ফের নারদ মামলার শুনানি

Narada Case : আপাতত জেল হেফাজতেই থাকবেন চার হেভিওয়েট, আগামিকাল ফের নারদ মামলার শুনানি - West Bengal News 24

আজও জেল মুক্তি হল না নারদ কাণ্ডে ধৃত চার হেভিওয়েট নেতার। এ দিনের মতো হাইকোর্টে নারদ মামলার শুনানি শেষ হয়ে গিয়েছে। আগামিকাল দুপুর ২ টো থেকে ফের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হবে।

এ দিন প্রায় প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে কলকাতা হাইকোর্টে নারদ মামলার শুনানি চলে। ধৃত চার নেতার জামিনের উপর কলকাতা হাইকোর্ট গত সোমবার যে স্থগিতাদেশ জারি করেছিল, তা প্রত্যাহার করার আবেদন জানান তাঁদের আইনজীবীরা। l ধৃত নেতাদের হয়ে সওয়াল করেন অভিষেক মনু সিংভি, কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, সিদ্ধার্থ লুথরারা। অন্যদিকে সিবিআই-এর হয়ে মূলত সওয়াল করেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা।

এ দিন সিবিআই-এর তরফে জামিনের বিরোধিতা করে বার বার গত সোমবার নিজাম প্যালেসের বাইরে যে বিক্ষোভ দেখানো হয়, তার প্রসঙ্গ তোলা হয় আদালতে। পাশাপাশি, সিবিআই অফিসে মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতি নিয়েও অভিযোগ জানান তুষার মেহতা। তিনি অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী সিবিআই অফিসে গিয়ে অফিসারদের উপরে চাপ সৃষ্টি করেছেন।

একই ভাবে রাজ্য়ের আইনমন্ত্রী নিম্ন আদালতে হাজির হয়ে বিচারকের উপরে চাপ সৃষ্টি করেন বলেও অভিযোগ করেন তুষার মেহতা। তিনি বোঝাতে চান, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির কারণেই যথাযথ ভাবে কাজ করতে পারেনি সিবিআই।

এর পাল্টা অভিষেক মনু সিংভি অভিযোগ করেন, জামিনের আবেদন এবং বিক্ষোভের বিষয় দু’টির মধ্যে যোগাযোগ নেই। যে নেতাদের গ্রেফতার করা হয়েছে, তাঁরা দীর্ঘদিন ধরে বিধায়ক ছিলেন বা রয়েছেন। তাঁরা তদন্তে সিবিআই-এর সঙ্গে অসহযোগিতা করেছেন এমন কোনও অভিযোগ বা প্রমাণও নেই।

পাশাপাশি সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বয়সের কথা উল্লেখ করে এবং বাকি তিনজনের কো- মর্বিডিটি রয়েছে বলেও জামিনের পক্ষে সওয়াল করেন অভিষেক মনু সিংভি। তিনি আরও দাবি করেন, মুখ্যমন্ত্রী সিবিআই অফিসে গিয়ে সহকর্মীদের প্রতি সহানুভূতি দেখিয়েছেন মাত্র। তিনিও কোনও অশান্তি করেননি।

সুব্রত মুখোপাধ্য়ায়ের আইনজীবী শুনানির শেষে অভিযোগ করেন, ইচ্ছাকৃত ভাবে শুনানি শেষ করতে দেরি করার কৌশল নেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, ধৃত নেতারা বার বার সমর্থকদের শান্ত থাকার আবেদন জানিয়েছেন। ফলে, নেতারা বিক্ষোভে উস্কানি দিয়েছেন, এই অভিযোগ ঠিক নয়। আর প্রতিবাদ করলে তা রাস্তায় নেমেই হয়। এটা মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার।

দু’ পক্ষের দীর্ঘ সওয়াল জবাবের পরেও অবশ্য স্বস্তি পেলেন না চার নেতা। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়ে দেয়, আগামিকাল, বৃহস্পতিবার বেলা দুটো থেকে ফের মামলার শুনানি হবে।

এই মুহূর্তে নারদ কাণ্ডে ধৃত সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায় এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন রয়েছেন। প্রেসিডেন্সি জেল হাসপাতালে রয়েছেন আর এক মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

সূত্র : নিউজ ১৮

আরও পড়ুন ::

Back to top button