অপরাধ

আইফোন থেকে চুরি নগ্ন ছবি, যৌন-ভিডিয়ো, ছাত্রীকে দিতে হল বিপুল অঙ্কের ক্ষতিপূরণ

এক ছাত্রীর আইফোন (iPhone) থেকে চুরি হয়েছিল তাঁর নগ্ন ছবি এবং যৌন দৃশ্য সম্বলিত ভিডিও। নেপথ্যে ছিলেন অ্যাপল (Apple) সংস্থার দুই কর্মী। ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়ায়। ফলস্বরূপ, ওই পড়ুয়াকে বিপুল আর্থিক মূল্য ক্ষতিপূরণ হিসাবে দিতে বাধ্য হয়েছে সংস্থা।

ওয়াকিবহাল মহলের দাবি, এই ক্ষতিপূরণের অঙ্ক ‘মাল্টি মিলিয়ন ডলার’। শুধু তাই নয়, দুই কর্মচারীকেও ছাঁটাই করা হয়েছে চাকরি থেকে। গোটা বিষয়টি স্বীকার করে নিলেও ‘ব্যবসায়িক ক্ষতি’ এড়াতে ওই ছাত্রীর নাম, পরিচয় গোপন রেখেছে অ্যাপল। প্রকাশ্যে আনা হয়নি ক্ষতিপূরণের সঠিক অঙ্কও।

বিতর্কের সূত্রপাত পাঁচ বছর আগে। ২০১৬ সালে আমেরিকার ওরেগনের বাসিন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া ওই ছাত্রী, নিজের আইফোন সারাতে দিয়েছিলেন ক্যালিফোর্নিয়ায় অ্যাপলেরই একটি মেরামতি কেন্দ্রে। দিন কয়েক পর, ওই পড়ুয়া তাঁর ফোন ফেরত পেয়ে যান। কিন্তু ততক্ষণে সংস্থার দুই কর্মী সেই ফোন থেকে ছাত্রীর ১০টি নগ্ন ছবি এবং একটি যৌনদৃশ্যের ভিডিও চুরি করে নিয়েছিলেন। এর পর তাঁরা ওই সমস্ত ছবি ও ভিডিও, ওই পড়ুয়ারই ফেসবুক পেজে পোস্ট করে দেন। গোটা বিষয়টাই এমনভাবে করা হয়েছিল যাতে মনে হয়, যেন ওই পড়ুয়াই সব কিছু ফেসবুকে পোস্ট করেছেন।

এই ঘটনার জেরে অ্যাপল সংস্থার বিরুদ্ধে ‘প্রচণ্ড মানসিক ক্ষতি’র অভিযোগ আনেন ওই ছাত্রী। ৫০ লক্ষ ডলার ক্ষতিপূরণ দাবি করেন। ঘটনা গড়ায় আদালত পর্যন্ত। এরপরই সক্রিয় হয় অ্যাপল। ‘ব্যবসায়িক ক্ষতি’ এড়াতে ওই পড়ুয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করে তাঁকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা জানায়। পাশাপাশি গোপনীয়তার চুক্তিও করে। শর্ত দেওয়া হয়, এই নিয়ে বাইরে মুখ খুলতে পারবেন না তিনি। জানাতে পারবেন না ক্ষতিপূরণের অঙ্ক। ক্ষতিপূরণের পরিমাণ প্রকাশ্যে না এলেও তা যে কোটি কোটি ডলারেরই সমতুল, তা স্পষ্ট।

সুত্র : সংবাদ প্রতিদিন

আরও পড়ুন ::

Back to top button