টলিউড

‘আমি জানি আমি নুসরতের জন্য কি করেছি, বাকি কথা কোর্টে হবে’, নুসরতের পাল্টা নিখিল

ক্রমাগত বিতর্ক-সমালোচনার সম্মুখীন হয়ে অবশেষে নিখিল জৈনের (Nikhil Jain) সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুলেছেন নুসরত জাহান (Nusrat Jahan)। সাফ জানিয়েছেন, ‘নিখিল জৈনের সঙ্গে তাঁর আইনত কোনও বৈবাহিক সম্পর্কই নেই। তাই আইনি পথে বিচ্ছেদের কোনও প্রশ্নই ওঠে না।’ উপরন্তু নিখিলের বিরুদ্ধে টাকা-পয়সা নয়-ছয়ের অভিযোগও তুলেছেন সাংসদ-নায়িকা।

নুসরতের অভিযোগ, তাঁকে না জানিয়েই বেআইনিভাবে তাঁর এবং তাঁর গোটা পরিবারের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা লেনদেন করেছেন নিখিল। যা নিয়ে স্পষ্টত পুলিশের দ্বারস্থ হওয়ারও হুমকি দিয়েছেন নুসরত জাহান। তবে, সাংসদ-অভিনেত্রীর এমন বিস্ফোরক বিবৃতি প্রসঙ্গে কোনওরকম মন্তব্যই করতে নারাজ নিখিল জৈন। শুধু পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, ‘আদালতে দেখা হবে।’

সংবাদমাধ্যমের কাছে নিখিল জানিয়েছেন, ‘আমি নুসরতের জন্য কী করেছি না করেছি, ও নিজেই সব জানে। কাজেই আমি এই নিয়ে কোনওরকম আলাদা মন্তব্য করতে চাই না। তাছাড়া, আমার যা জানানোর আমি আইনতই সবকিছু আদালতের কাছে জানিয়েছি।’ তাঁর কথায়, ‘আমি যে পরিবারের ছেলে আমার কাছে বিয়ে মানে বিয়েই, আমি বিয়ের পর আমার স্ত্রীর কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমি সবটাই মন থেকে করেছি।

আমি বিয়ে করেছি, আমরা একসঙ্গে স্বামী-স্ত্রীর মতোই থাকতাম। মন থেকেই সবটা করেছিলাম। তবে এখন আমি আর ওঁর সঙ্গে থাকতে চাই না, তার কারণ কোর্টে জানিয়েছি। আমরা প্রায় আট মাস আলাদা থাকছি, কেন থাকছি তা সব আদালতে জানিয়েছি। সব তথ্যও দিয়েছি। বিয়ে হয়েছে কি হয়নি সেটা এবার আদালতই সিদ্ধান্ত নেবে। আর কিছু আমি এই বিষয়ে বলতে চাই না।’

প্রসঙ্গত, এর আগে নিখিল জানিয়েছিলেন যে, যে দিনই তিনি জানতে পেরেছেন যে, নুসরত আর তাঁর সঙ্গে থাকতে চান না, অন্য কারও সঙ্গে থাকতে চান, সেদিনই আদালতের কাছে দেওয়ানি মামলা দায়ের করেছেন তিনি। যেহেতু ম্যারেজ রেজিস্ট্রেশন হয়নি তাই অ্যানালমেন্টের মাধ্যমে আলাদা হওয়ার কথাও জানান নিখিল। আগামী জুলাই মাসেই সেই মামলার শুনানি রয়েছে। সেই প্রসঙ্গেই নিখিলের মন্তব্য, ‘আদালতে দেখা হবে।’

সুত্র : দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

আরও পড়ুন ::

Back to top button