রাজনীতিরাজ্য

মুকুলের ফুল বদল সাথে পুত্র, জেনে নিন কে কোন পদ পাচ্ছেন

তৃণমূলে ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে মুকুল রায়। ইতিমধ্যেই রাজনৈতিক মহলে আলোচনা শুরু হয়ে গিয়েছে, তৃণমূলে গুরুত্বপূর্ণ পদ পাবেন মুকুল। আশা ভঙ্গ হবে না শুভ্রাংশু রায়েরও‌। তৃণমূল সূত্রে খবর, আগামিদিনে মুকুল রায়কে জাতীয় স্তরেই ব্যবহার করবে তৃণমূল। অন্যদিকে মুকুলের বিধানসভা আসনে তৃণমূলের বাজি হতে পারেন শুভ্রাংশু রায়।

দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে প্রথমবার কোনও ভোটে জিতে জনপ্রতিনিধি হয়েছিলেন মুকুল রায়। কিন্তু বিজেপির সংস্কৃতির মধ্যে তিনি নিজেকে মানিয়ে নিতে পারছিলেন না। আপাতত এই দোহাই দিয়েই ফের তৃণমূলে যোগ দিলেন স-পুত্রে। জানা গিয়েছে, কৃষ্ণনগরের উত্তরের বিধায়ক পদ থেকে শীঘ্রই ইস্তফা দেবেন মুকুল। তৃণমূলে মুকুলকে পুনর্বাসন হিসেবে রাজ্যসভার সাংসদ করে পাঠানো হতে পারে।

এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘মুকুল রায় আগের পথে ফিরে এলে কোন সমস্যা হবে না।’ স্বাভাবিক ভাবেই তাকে জাতীয় স্তরের রাজনীতিতে ব্যবহার করা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। যেহেতু ২০২৪ লোকসভা নির্বাচনকে টার্গেট করেছে তৃণমূল। তার আভাস এদিন মিলে গেল, যখন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে মুকুল ও শুভ্রাংশুকে তৃণমূলের উত্তরীয় দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়।

তৃণমূল সূত্রের খবর, কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক পদ মুকুল রায় ছেড়ে দেওয়ার পর ওই আসনের উপনির্বাচন হবে। এবার তৃণমূলের তরফে সেখানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন শুভ্রাংশু রায়। বীজপুর থেকে বিজেপির হয়ে একুশের ভোট লড়ে হেরেছিলেন শুভ্রাংশু। তবে কিছুদিন আগে তাঁর অসুস্থ মাকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় হাসপাতালে দেখতে যাওয়া নিয়ে তার প্রশংসা এবং পাশাপাশি একটি ফেসবুক পোস্ট জল্পনা বাড়িয়েছিল।

অবশেষে শুক্রবার বাবার সঙ্গেই তৃণমূলে ফিরলেন তিনিও। কিন্তু তাঁকে পুনর্বাসন দিতে গিয়ে কৃষ্ণনগর উত্তরের তৃণমূল প্রার্থী কৌশানী মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে কি ন্যায় করছে দল? এই প্রশ্নের উত্তরে তৃণমূলের তারকা নেত্রী বললেন, ‘ভোটের ময়দানে প্রচারেই দেখা যায়নি মুকুল রায়কে। তা সত্বেও তিনি আমাকে হারিয়ে দিয়েছেন। এমন হেভিওয়েট নেতা তৃণমূলে ফিরে আসায় অবশ্যই আমাদের দল আরও মজবুত হবে।’

সুত্র : এই মুহুর্তে

আরও পড়ুন ::

Back to top button