রাজ্য

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নিম্নমুখী মৃত্যু, আক্রান্ত ৩,১৮৭ জন

বাঙালির অন্যতম পার্বন জামাইষষ্ঠীর দিনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যু আগের দিনের তুলনায় আরও কমেছে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৩ হাজার ১৮৭ জন আর প্রাণ হারিয়েছেন ৬৯ জন। স্বস্তি দিচ্ছে শনাক্তের হার বা পজিটিভিটি রেটও।

গত ২৪ ঘন্টায় পজিটিভিটি রেট এসে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ১৪ শতাংশে। তবে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা। একদিনে নতুন করে ১,১০৬ জন সক্রিয় করোনা রোগী বাড়ায় অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ২১ হাজারের গণ্ডি ছাড়িয়েছে।

বুধবার সন্ধ্যায় রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘গত ২৪ ঘন্টায় ৬১ হাজার ৯৮১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নয়া নমুনায় আরও ৩ হাজার ১৮৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৪ লক্ষ ৭১ হাজার ২৩১ জনে। মারণ ভাইরাসের ছোবলে নতুন করে প্রাণ হারিয়েছেন ৬৯ জন। যার ফলে রাজ্যে এখনও পর্যন্ত করোনার বলি হলেন ১৭ হাজার ১১৮ জন।’

দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যুর রেখচিত্র লাগাতার নিম্নমুখী হওয়ার ফলে যেমন স্বস্তি মিলেছে, তেমনই কিছুটা হলেও অস্বস্তি বাড়াচ্ছে দৈনিক সংক্রমিতের তুলনায় দৈনিক সুস্থতার হার হ্রাস পাওয়া। স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান ২ হাজার ১২ জন। এ নিয়ে সুস্থ হলেন ১৪ লক্ষ ৩২ হাজার ৯৬১ জন। সুস্থতার হার দাঁড়িয়েছে ৯৭ দশমিক ৪০ শতাংশে। রাজ্যে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২১ হাজার ১৫২ জনে।

গত ২৪ ঘন্টায় উত্তর ২৪ পরগনার কোভিড সংক্রমণ চিত্রের সামান্য উন্নতি ঘটেছে। নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৪৩৫ জন। আর প্রাণঘাতী ভাইরাস কেড়েছে ১৭ জনের প্রাণ। কলকাতায় অবশ্য দৈনিক সংক্রমণ আগের দিনের তুলনায় সামান্য বৃদ্ধি পেয়েছে। একদিনে আরও ৩৭৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

প্রাণ হারিয়েছেন ১৩ জন। হুগলি এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনায় দৈনিক সংক্রমণ দু’শোর গণ্ডির নিচে নেমে এসেছে। দু্ই জেলায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন যথাক্রমে ১৯১ ও ১৯২ জন। হাওড়ায় নতুন করে আরও ২০২ জনের শরীরে মারণ ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

সুত্র : এই মুহুর্তে

আরও পড়ুন ::

Back to top button