বর্ধমান

শুধুই বিজেপি কর্মীদের ত্রিপল দান, বিক্ষোভের মুখে অগ্নিমিত্রা পাল

শুধুই বিজেপি কর্মীদের ত্রিপল দান, বিক্ষোভের মুখে অগ্নিমিত্রা পাল - West Bengal News 24

ত্রিপল বিলি করতে গিয়ে দ্বিচারিতার অভিযোগ উঠল বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পালের বিরুদ্ধে। আসানসোল দক্ষিণের বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল আজ রানিগঞ্জে ত্রিপল বিলি করতে গিয়েছিলেন। আচমকাই প্রবল বর্ষণে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে, জল পড়ছে অনেকের ঘরে তাঁদের পাশে দাঁড়াতেই ত্রিপল বিলি করছিলেন অগ্নিমিত্রা।

কিন্তু তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান এলাকাবাসী। অভিযোগ বিধায়ক বেছে বেছে যারা বিজেপি করেন বা সমর্থকদের ত্রিপল দিচ্ছেন। যাদের পাওয়ার কথা তাদের ব্রাত্য রেখেছেন বিধায়ক। বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন জে কে নগর এলাকার রানিগঞ্জ গ্রাম পঞ্চায়েত সমিতির সভাধিপতি বিনোদ নুনিয়া।

তিনি জানিয়েছেন, ‘বিজেপি নেতা-কর্মীদের বাড়িতে ত্রিপল পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এলাকার সাধারণ মানুষ এবং তৃণমূলের কর্মী সমর্থকদের ত্রিপল দেওয়া হচ্ছে না। এই বৈষম্য কেন, এটাই বিধায়ককে জিজ্ঞাসা করতে চেয়েছিলাম।’ এদিন অগ্নিমিত্রা পালের গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখান বিনোদ, সঙ্গে ছিলেন কিছু এলাকাবাসী।

অগ্নিমিত্রা পালের দেহরক্ষীরা, ধাক্কা মেরে সরাতে এলে ঘটনা উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। যদিও পরবর্তীতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। ঘটনা সম্পর্কে বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল জানিয়েছেন, ‘আমি তৃণমূল, বিজেপি সকলেরই বিধায়ক। সকলের কথাই শুনতে গিয়েছিলাম।

কেউ শান্ত ছিল না, আমি তাই তাঁদের বলি সকলে শান্তভাবে কথা বলুন।’ তিনি আরও জানান, ‘আমাকে ৫০- ৬০ জন ঘিরে ধরেছিল। আমি কোনও পক্ষপাতিত্ব করিনি। আমি সকলের বিধায়ক। সেক্ষেত্রে পক্ষপাতিত্বের প্রশ্নও উঠছে কেন! আমাকে গালাগালি করা হয়েছে। এটা চূড়ান্ত অসভ্যতা।’

অগ্নিমিত্রার দাবি উড়িয়ে বিনোদ জানান, ‘ত্রিপল দেওয়ার জন্য ৩০০ জনের তালিকা প্রস্তুত করে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু অনেকেই ত্রিপল পায়নি। সেই নিজেই আলোচনা করতে চেয়েছিলাম।’ তৃণমূলের দাবি, উনি এদিন নিজের ইচ্ছায় এসে বিজেপি কর্মকর্তাদের ডেকে ডেকে ত্রিপল দিয়েছেন। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তরা কেউ পাননি, আর যারা তৃণমূল করে তারা তো ব্রাত্যই থেকেছেন।

সূত্র : এই মুহুর্তে

আরও পড়ুন ::

Back to top button