বর্ধমান

বর্ধমানে চালু হতে চলেছে স্পেশালাইজড অ্যাডপশন এজেন্সি বা ‘সা’

দেবাঙ্কন সরকার

দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণ হতে চলেছে এবার পূর্ব বর্ধমান জেলায়। খুব তাড়াতাড়িই বর্ধমানে চালু হতে চলেছে স্পেশালাইজড অ্যাডপশন এজেন্সি বা ‘সা’।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বর্ধমান শহর সংলগ্ন জোতরামে তৈরি হওয়া জেলা গার্লস হোমেই চালু হতে চলেছে এই এজেন্সি। ইতিমধ্যেই এই এজেন্সির জন্য পরিকাঠামো তৈরির কাজ চলছে পুরোদমে।জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, জেলা সমাজ কল্যাণ দফতরের পক্ষ থেকে এই এজেন্সির জন্য ইতিমধ্যেই বিভিন্ন ধরণের কর্মী নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়েছে।

এই এজেন্সির জন্য থাকছে একজন মহিলা কাউন্সিলর, ১জন মহিলা চাইল্ড ওয়েলফেয়ার অফিসার, একজন মহিলা ম্যানেজার, একজন মহিলা সোস্যাল ওয়ার্কার তথা চাইল্ডহুড এডুকেটর, একজন নার্স, ৬জন আয়া এবং একজন চৌকিদার। চলতি জুলাই মাসের মধ্যেই এই কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়া শেষ হলেই আগামী আগষ্ট মাস থেকেই শুরু হবে এই এজেন্সির কাজ।

জানা গেছে, আপাতত ১০টি শিশুকে এখানে রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।উল্লেখ্য, নিঃসন্তান দম্পতিরা কোন শিশুকে দত্তক হিসাবে গ্রহণ করতে চাইলে সরকারি নিয়ম মেনে তাঁদের এই এজেন্সি থেকে শিশু দত্তক নিতে হয়। এতদিন পূর্ব বর্ধমান জেলায় সরকারিস্তরে কোন অ্যাডপশন এজেন্সি না থাকায় দত্তক নিতে ইচ্ছুকদের অন্যত্র যেতে হত, এমনকি বিভিন্ন সরকার অনুমোদিত এজেন্সির কাছ থেকে তাঁদের নিতে হত।

অনেক সময়ই সংশ্লিষ্ট দম্পতিরা সরকারিভাবে শিশুদের দত্তক নিতে চান। এখন বর্ধমানে অ্যাডপশন এজেন্সি চালু হলে সরকারি নিয়ম মেনে তাঁরা বর্ধমানের এই অ্যাডপশন এজেন্সি থেকে শিশুদের দত্তক নিতে পারবেন। উল্লেখ্য, এই অ্যাডপশন এজেন্সি তৈরি এবং তা চালু হতে চলায় পরিত্যক্ত শিশুদের রাখার ক্ষেত্রে আর কোন সমস্যা থাকবে না।

এখন থেকে জেলায় কোথাও কোন অভিভাবকহীন শিশুকে পাওয়া গেলে তাঁদের এই অ্যাডপশন এজেন্সিতেই রাখা হবে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button