রূপচর্চা

শ্যাম্পুর ৫টি ভেষজ বিকল্প

চুলগুলো প্রাণহীন আর অনুজ্জ্বল হয়ে যাচ্ছে ক্রমশ? শ্যাম্পু ব্যবহার করলে আরও রুক্ষ্ম হয়ে পড়ে চুল? তাহলে আপনার জন্য খুব ভালো একটি সমাধান হতে পারে শ্যাম্পুর বদলে ভেষজ উপাদান দিয়ে চুল পরিষ্কার করা। হ্যাঁ, শ্যাম্পুর বদলে সাধারণ কিছু ঘরোয়া উপাদান ব্যবহার করুন, চুল কন্ডিশনও করুন প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে। কিছুদিনের মাঝেই লক্ষ্য করবেন যে বদলে গেছে চুলের রংঢং। ক্রমশ চুলগুলো হয়ে উঠেছে উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত।

এসব প্রাকৃতিক উপাদানে পিএইচ’য়ের মাত্রা অনেক কম পরিমাণে থাকে, ফলে এগুলো মাথার স্কাল্প পরিষ্কার করার আদর্শ উপায়। এগুলো ব্যবহারের ফলে প্রাকৃতিক ভাবেই মাথায় নতুন চুল গজায় ও অতিরিক্ত চুল পড়া বন্ধ হয়। এসব উপাদান চুলে ব্যবহার করার ফলে চুলে জট পড়ে না, ফলে চুল ছিড়ে যাওয়ার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

ভেষজ উপাদান চুল পেকে যাওয়া রোধ করে চুলকে কালো ও ঝলমলে রাখতে সাহায্য করে। ভিটামিন সি রয়েছে যা মাথার ত্বকে শুষ্ক হতে দেয় না। ফলে খুশকি ও স্কাল্পের বিভিন্ন সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

আসুন, জেনে নেই ব্যবহার রীতি।

রিঠা
রাতে রিঠার খোসা টুকরা করে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে সেটা ভালোভাবে চটকে ছেঁকে সেই পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এতে চুল ঝরঝরে হয়ে উঠবে।

মুলতানি মাটি
মুলতানি মাটি ১০০ গ্রাম একটা পাত্রে নিয়ে দুই ঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে নিজেই তৈরি করতে পারেন ঘরোয়া শ্যাম্পু। পানিতে ফুলে ওঠা মুলতানি মাটি ভালোভাবে পেস্ট করে ব্যবহার করুন শ্যাম্পু হিসেবে।

বেসন
শ্যাম্পুর বিকল্প হিসেবে বেসনও ব্যবহার করতে পারেন। বেসন পানিতে গুলে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে মাথায় লাগান। ১৫-২০ মিনিট রাখুন। তারপর ধুয়ে ফেলুন।

শিকাকাই
শিকাকাই ২৫ গ্রাম আধাভাঙা করে এর সঙ্গে ২৫ গ্রাম আমলকী মিশিয়ে ৫০০ মিলি পানিতে ভিজিয়ে রেখে তারপর ছেঁকে শ্যাম্পু হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

খৈল
সরষের খৈল চুলের জন্য খুব ভালো শ্যাম্পু। খৈল রাতে ভিজিয়ে রাখুন। তারপর ছেঁকে চুল ধুয়ে নিতে পারেন।
শ্যাম্পুর পাশাপাশি কন্ডিশনার হিসেবেও ভেষজ উপাদান বেছে নিন। কন্ডিশনার হিসেবে চায়ের লিকার খুবই উপকারী। এ ছাড়া শ্যাম্পুর পর লেবুর পানি ও কন্ডিশনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

আরও পড়ুন ::

Back to top button