রূপচর্চা

খুশকি দূর করার কার্যকরী উপায়

মাথায় খুশকির যন্ত্রণায় অস্থির। আর হবেনই বা না কেন? শুষ্ক এই আবহাওয়াতে এমনিই ত্বক শুকিয়ে চৌচির। তারওপর আবার অতিরিক্ত ধুলাবালিতে চুল এলোমেলো। খুব সুন্দর করে চুল কন্ডিশনিং করে বাইরে বেরিয়েছেন, কিন্তু রাস্তায় পা দিতেই এক ঝটকায় সব উধাও। একরাশ ধুলো এসে জমে যাবে মাথার ভেতর। দিনভর এভাবে থেকে যখন বাসায় ফিরছেন ততক্ষণে জমে গেছে খুশকি। তবে নিয়মিত যত্ন না নিলে মাথায় চুলকানি, চুল পড়া এবং চুল নিষ্প্রাণ হয়ে হয়ে যাবে। তাই চুলের সৌন্দর্য বজায় রাখতে নিয়মিত পরিচর্যা করা দরকার। সেজন্য-

খুশকি তাড়াতে ভিনেগার
উষ্ণ পানি ১ কাপ, সাদা ভিনেগার ১ কাপ নিয়ে ভালোভাবে মিশান। এবার এই মিশ্রণ নিয়ে আপনার চুলের গোঁড়ায় সুন্দর করে লাগিয়ে নিন। এটা লাগিয়ে রাখার ১০ থেকে ২০ মিনিট পর স্বাভাবিক পানি দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন। এভাবে আপনি সপ্তাহে এক থেকে দুই বার ব্যবহার করলে খুশকি কমে আসবে।

খুশকি তাড়াতে বেকিং সোডা
বেকিং সোডা ১ টেবিল চামচ, উষ্ণ পানি ১ কাপ আর কয়েক ফোটা রোজমেরি অয়েল সমিশিয়ে তা একটি বোতলে পুরে ভালোভাবে ঝাকিয়ে নিন। প্রতিবার শ্যাম্পু করার আগে এই মিশ্রণ দিয়ে আপনার চুল ধুয়ে নিন, চাইলে শ্যাম্পুর সঙ্গে এই মিশ্রণ মিশিয়ে নিয়ে শ্যাম্পু করতে পারেন। দেখবেন খুশকি দূর হয়ে যাবে খুব সহজে। প্রথম দিকে এতে আপনার চুল কিছুটা রুক্ষ্ম লাগতে পারে কিন্তু আস্তে আস্তে সেটা স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

খুশকি তাড়াতে লেবু
লেবুর রস ২ টেবিল চামচ ও ১ কাপ পানি মিশিয়ে রেখে দিন। প্রথমে ২ টেবিল চামচ লেবুর রস আপনার মাথার ত্বকে ভালো কেরে ম্যাসাজ করে আধাঘণ্টা অপেক্ষা করুন। লেবু পানির মিশ্রণ দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন। যতদিন খুশকি পুরোপুরি না যায় ততদিন এভাবে ব্যবহার করতে পারেন।

খুশকি তাড়াতে নিমপাতা
দুই মুঠো নিমপাতা নিয়ে ৪ থেকে ৫ কাপ গরম পানির মধ্যে সারারাত ভিজিয়ে রাখুন। পরের দিন সকালে এই পানি দিয়ে আপনার মাথা ধুয়ে ফেলুন। এভাবে কিছুদিন এটি ব্যবহার করে দেখুন খুশকি চলে যাবে। আপনি চাইলে শুধু নিমপাতা বেটে তা চুলে লাগিয়ে ১ ঘণ্টা মতো রেখে চুল ধুয়ে ফেলুন দেখবেন খুশকি কমে যাবে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button