রাজ্য

অল্প খরচে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য প্রশিক্ষণ কোর্স চালু করল রাজ্য

সরকারি উদ্যোগে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার প্রশিক্ষণমূলক কোর্স চালু হল রাজ্যে। আইএএস, আইপিএস-সহ সিভিল সার্ভিসের যাবতীয় পরীক্ষায় বসতে ইচ্ছুক দুঃস্থ, আর্থিক ভাবে অস্বচ্ছল ছাত্রছাত্রীরা এই কোর্সে ভর্তি হতে পারবেন। শনিবার সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর সিভিল সার্ভিস স্টাডি সেন্টার থেকে এই কোর্স চালু করা হয়েছে।

২০১৪ সালে সিভিল সার্ভিস স্টাডি সেন্টারের উদ্বোধন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর সম্প্রতি তা নাম পরিবর্তন করে হয়েছে সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর সিভিল সার্ভিস স্টাডি সেন্টার। এখানে আজ সরকারি কোর্সের উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব তথা মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

আলাপনবাবু বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গ সরকার যে নেতাজি সুভাষচন্দ্র অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রেনিং ইনস্টিটিউট আছে, তার ভগিনী সংস্থা সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর সিভিল সার্ভিস স্টাডি সেন্টার। তারা বাংলার গ্রামে গঞ্জে মফঃস্বলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সিভিল সার্ভিস আইএএস আইপিএস প্রভৃতি পরীক্ষায় বসতে ইচ্ছুক গরীব মধ্যবিত্ত নিম্ন-মধ্যবিত্ত যে সমস্ত তরুণ তরুণী আছে তাদের খুবই সামান্য খরচের বিনিময়ে প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হবে। কোর্স উপযুক্ত শিক্ষক দিয়ে আইএএস আইপিএস অফিসারদের সহায়তা নিয়ে তৈরি করা হবে।

সর্বভারতীয় প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় বাংলার প্রতিনিধিত্ব যাতে বাড়ে, পড়ুয়ারাও যাতে উপযুক্ত চাকরি পায় তার জন্যেই এই প্রয়াস। আমরা সবাই এতে সামিল হয়েছি। পরিশ্রম করলে অনায়াসে এই প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার উত্তীর্ণ হওয়া সম্ভব বলেন আলাপনবাবু। কোনও রকম ধন বৈষম্য এতে প্রভাব ফেলতে পারে না। এর জন্য যা যা সহযোগিতা দরকার রাজ্য সরকার তা করবে কার্যত বিনামূল্যে।

সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর সিভিল সার্ভিস স্টাডি সেন্টারের চেয়ারম্যান আর এক প্রাক্তন আমলা সুরজিত্‍ কর পুরকায়স্থ বলেছেন, সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় বসতে ইচ্ছুক পড়ুয়াদের জন্য আমরা এই কোর্স চালু করছি। কোর্সের ডিরেক্টর রাজনবীর কাপুর। কোর্স দু’মাসের। অনলাইনেই এই কোর্স চলবে। ইতিহাস, ভূগোল, অর্থনীতি, রাজনীতি এবং কারেন্ট অ্যাফেয়ার্সের ক্লাস নেওয়া হবে। জুনিয়র আইএএস অফিসাররা এই ক্লাস নেবেন।

প্রসঙ্গত, আলপনবাবু ব্যক্তিগতভাবে অনেক দিন ধরে এই ধরনের উদ্যোগ শুরু করতে আগ্রহী। বাম জমানায় প্রেসিডেন্সি বিশ্বিবিদ্যালয়ে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার প্রস্তুতির প্রশিক্ষণ কেন্দ্র চালু করা হয়েছিল। আলাপনবাবু সেই সময় বিদেশ ভূমিকা নেন। মমতা বন্দ্যোাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর এই ব্যাপারে সরকারি স্তরেই উদ্যোগ নন।

সূত্র : দ্য ওয়াল

আরও পড়ুন ::

Back to top button