রাজনীতিরাজ্য

তাহলে কী বিজেপি থেকে বিদায় নিচ্ছেন বাবুল সুপ্রিয়?‌ বাড়ছে জল্পনা

কয়েকদিন আগেই ছাড়তে হয়েছে মন্ত্রিত্ব। আর তারপর থেকেই বাবুলের গলায় শোনা যায় আক্ষেপের সুর। টানা ৭ বছর ধরে কেন্দ্রে মন্ত্রী ছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। কিন্তু হঠাত্‍ই মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়তে হল বাবুল সুপ্রিয়কে। এই পরিস্থিতিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন পোস্টে দলের নেতৃত্বের প্রতি পরোক্ষে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বাবুল সুপ্রিয়।

রাজনৈতিক মহলে ক্রমশ জল্পনা বাড়ছে বাবুলের বিজেপি ত্যাগ এবং রাজনীতি থেকেই দূরে সরে যাওয়া নিয়ে। বাবুল সুপ্রিয়র টুইটার হ্যান্ডেলে দেখা যাচ্ছে ‘‌টুইটার বায়ো’-তে যে ভাবে সামগ্রিক ভাবেই রাজনীতি থেকে নিজের দূরত্ব তৈরি করছেন বাবুল সুপ্রিয়। বিজেপি থেকে এবং সক্রিয় রাজনীতি থেকেই বাবুল সরে যাবেন বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, বাবুলের টুইটার বায়ো দেকেই বোঝা যাচ্ছে রাজনীতির প্রতি বাবুলের বিতশ্রদ্ধা ধরা পড়ছে। ২০১৪ সালে আসানসোল লোকসভা কেন্দ্র থেকে সাংসদ নির্বাচিত হন বাবুল সুপ্রিয়। ফের ২০১৯ লোকসভা ভোটেও আসানসোল থেকেই সাংসদ নির্বাচিত হন। বরাবরই আসানসোলের মাটিতে কঠিন লড়াই জিতে নিতেন বাবুল সুপ্রিয়। আর কঠিন লড়াইকে সহজে পরিণত করার জন্য পুরষ্কারও পান তিনি।

২০১৪ সালেও মোদি মন্ত্রিসভায় জায়গা পান বাবুল সুপ্রিয়। ২০১৯ সালেও মোদি মন্ত্রিসভায় ঠাঁই মেলে বাবুলের। রাজনীতিতে সাফল্য পেয়েছিলেন অল্প সময়ের মধ্যেই। কিন্তু একুশের বিধানসভা নির্বাচনে টালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে ভোটে লড়লেও হেরে যান বাবুল সুপ্রিয়। বেশ বড় ব্যবধানে বাবুলকে হারিয়ে দেন রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।

বঙ্গ রাজনীতির অন্দরে বাবুলের সঙ্গে দিলীপ ঘোষের সম্পর্ক যে ভালো নয় তা জানেন সকলেই। মন্ত্রিত্ব চলে যাওয়ার পর বাবুল যদি রাজনীতি ছেড়ে দেন সেক্ষেত্রে আসানসোলের সাংসদ পদ থেকেও সরে যেতে হবে তাঁকে। বাবুল ঘনিষ্ঠদের কথায়, রাজনীতি ছাড়ছেন কিনা নাকি বিজেপি ছাড়ছেন এ বিষয়ে বাবুল কিছুই বলছেন না। তবে রাজনীতি থেকে এখন কয়েকদিন মনে হয় ছুটি নিয়েছে।

প্রসঙ্গত, বাবুল সুপ্রিয়র মন্ত্রিত্ব চলে যাওয়ার দিনে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেছিলেন বাবুল আবার কী দোষ করল যে ওঁর মন্ত্রী পদ কেড়ে নিল। এখন বাবুল খারাপ হয়ে গেল নাকি মোদিজীর কাছে। মমতা ব্যানার্জি এবং বাবুল সুপ্রিয়র মধ্যেও একটা যোগাযোগ তৈরি হচ্ছে বলেই মনে করছে ওয়াকিবহল মহল। পদ্মফুল ছেড়ে বাবুলের জোড়াফুলে যাওয়ার সম্ভাবনা নিয়েও বাড়ছে ধোঁয়াশা।

সূত্র : আজকাল

আরও পড়ুন ::

Back to top button