ঝাড়গ্রাম

দুঃস্থ কলেজছাত্রীর পাশে দাঁড়ালেন স্কুলশিক্ষক

স্বপ্নীল মজুমদার

ঝাড়গ্রাম: মানবিক মুখ নিয়ে আবারও এগিয়ে এলেন ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুরের নয়াবসান জনকল্যাণ বিদ্যাপীঠের শিক্ষক হেরম্বনাথ চক্রবর্তী।

ঝাড়গ্রাম জেলার নয়াগ্রাম ব্লকের ছোটখাঁকড়ি গ্রামের বাসিন্দা কলেজ পড়ুয়া বৈশাখী মাহাতোর পাশে দাঁড়ালেন হেরম্বনাথ। বৈশাখীর বাবা বিমল মাহাতো মণ্ডপসজ্জার কাজ করেন। করোনা পরিস্থিতিতে বিমল এখন কার্যত অনেকাংশেই কর্মহীন। ফলে দুই মেয়ে, এক ছেলে, স্ত্রীকে নিয়ে পাঁচজনের সংসার চালাতে তাঁর হিমশিম অবস্থা।

বড় মেয়ে বৈশাখী ঝাড়গ্রাম রাজ কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। অর্থাভাবে ফোর্থ সেমিস্টারের জন্য প্রয়োজনীয় বইপত্র এখনও বৈশাখী সংগ্রহ করে উঠতে পারেননি। তাছাড়াও এই মেধাবী ছাত্রী আবার স্নায়ুর রোগেও আক্রান্ত। অর্থাভাবে প্রয়োজনীয় ওষুধও কেনা সম্ভব হচ্ছে না। বিষয়টি জানতে পেরেই বৈশাখীর বাড়ি গিয়ে বইপত্র সহ বিভিন্ন শিক্ষাসমগ্রী দিয়ে সাহায্য করেছেন হেরম্বনাথ। এছাড়াও নগদ টাকা ও পুষ্টিকর খাদ্যসামগ্রীও বৈশাখীর হাতে তুলে দিয়েছেন ওই শিক্ষক।

বাঁকুড়ার তালডাংরার হাড়মাসড়া গ্রামের আদি বাসিন্দা হেরম্বনাথ কর্মসূত্রে ঝাড়গ্রাম জেলায় থাকেন। দরদী এই শিক্ষক নিজের বেতনের টাকা দিয়েই দুঃস্থ, আর্তদের পাশে দাঁড়ান।

আরও পড়ুন ::

Back to top button