উঃ ২৪ পরগনা

‘ফোনেই পাওয়া যায় না দলের নেতাদের’, দল ছাড়ার পর অভিযোগ বিজেপি কর্মীদের

বিরাট আকারের ভাঙন বিজেপিতে। শয়ে শয়ে বিজেপির নেতা কর্মীরা বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন। আজই সবাই বিজেপি ছেড়ে এলেন তৃণমূলে। তাদের হাতে তৃণমূলের পতাকা তুলে দিলেন এলাকার বিধায়ক।

বসিরহাট মহকুমার স্বরূপনগর ব্লকের সগুনা গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘোলা শ্রীরামপুরের একাধিক পরিবারের বিজেপি সমর্থকেরা আজ শুক্রবার বিজেপি ছেড়ে যোগ দিলেন তৃণমূলে। প্রায় ২০০ জন যোগ দেন তৃণমূলে। রূপনগরের বিধায়ক বীনা মন্ডল, এ দিন ওই কর্মীদের হাতে তাঁদের দলীয় পতাকা তুলে দেয় তৃণমূল।

জানা গিয়েছে, এলাকার কমপক্ষে ৫০টি পরিবারের সদস্য সেখানে উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের স্বরূপনগর ব্লক সভাপতি রমেন সর্দার সহ স্থানীয় নেতৃত্বরাও। এ দিন বিজেপির অন্যান্য নেতা কর্মীদের সঙ্গেই বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন এলাকার পঞ্চায়েত সদস্য মৌমিতা মন্ডল।

তিনি বলেন, “আমরা এলাকায় সে ভাবে উন্নয়নের কাজ করতে পারছিলাম না। বিশেষ করে যে ভাবে ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে মানুষের হয়ে কাজ করার যে কথা ছিল তা সম্ভব হয়ে উঠছিল না।” পাশাপাশি করোনা মহামারী ও যশের বিপর্যয়ে তৃণমূল মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

মৌমিতা মন্ডল তৃণমূলের ‘দুয়ারে রেশন’ বা ‘স্বাস্থ্য সাথী’র মতো প্রকল্পের কথাও উল্লেখ করেন। তাঁর অভিযোগ, বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির পরাজয়ের পর থেকেই বিজেপির রাজ্য স্তরের নেতারা দলের নিচের স্তরের কর্মীদের সঙ্গে ঠিক মতো যোগাযোগ রাখছেন না।

বেশিরভাগ সময়ই তাদের মোবাইল সুইচ বন্ধ পাওয়া যায়। নয়তো ব্যস্ত থাকে এমনই অভিযোগ করেছেন ওই নেত্রী। তিনি স্পষ্ট বলেন, “মানুষের জন্য কাজ করার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাজে উদ্বুদ্ধ‌ হয়ে আমরা এই দলে যোগদান করলাম।”

সূত্র : এই মুহুর্তে

আরও পড়ুন ::

Back to top button